নারায়ণগঞ্জে অস্ত্র উদ্ধার: পাওয়া গেছে এসএমজি, রকেট লঞ্চার, গ্রেনেড

  • ২ জুন ২০১৭
পূর্বাচল এলাকা থেকে উদ্ধার অস্ত্র ও গোলাবারুদ ছবির কপিরাইট Focus Bangla
Image caption ঢাকার কাছে পূর্বাচল এলাকা থেকে পুলিশ বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার করেছে।

বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার কাছে পূর্বাচল এলাকা থেকে পুলিশ বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার করেছে।

পুলিশের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, নারায়ণগঞ্জ জেলার মধ্যে অবস্থিত পূর্বাচল ৫ নম্বর সেক্টরের একটি খাল থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় এসব অস্ত্রশস্ত্র উদ্ধার করা হয়।

অভিযান এখনও চলছে।

নারায়ণগঞ্জ পুলিশ এই অভিযান পরিচালনা করে, আর পানি থেকে অস্ত্র খুঁজে পেতে তাদেরকে সহায়তা করে ডুবুরিরা।

এখন পর্যন্ত যেসব অস্ত্র পাওয়া গেছে তার মধ্যে রয়েছে ৬২টি সাব-মেশিন গান বা এসএমজি, দুইটি রকেট লঞ্চার, ৫টি পিস্তল, ৪২ টি গ্রেনেড এবং ৪৭টি রকেট শেল।

পুলিশ সদর দপ্তরের সহকারী মহাপরিদর্শক মোঃ মনিরুজ্জামান উদ্ধার হওয়া অস্ত্রের তথ্য দিয়ে বলেন যে এসএমজি-গুলো চীনে তৈরি বলে মনে করা হচ্ছে।

ঐ এলাকায় আরও অস্ত্র বা গোলাবারুদ আছে কি-না, তা খুঁজে দেখা হচ্ছে বলেও তিনি জানান।

মি. মনিরুজ্জামান বিবিসিকে বলেন, পানি নিরোধী ব্যাগের মধ্যে অস্ত্রগুলো রাখা ছিল, তবে এগুলো এখন কাদামাটিতে মাখামাখি হয়ে আছে।

ছবির কপিরাইট Focus Bangla
Image caption পূর্বাচল ৫ নম্বর সেক্টরের একটি খাল থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় এসব অস্ত্রশস্ত্র উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ বলছে, মঙ্গলবারে একজন ব্যক্তিকে গ্রেফতারের পর তার দেয়ার তথ্যের ভিত্তিতে পূর্বাচলে অভিযান চালানো হয়।

"তার বক্তব্য অনুযায়ী, আড়াই থেকে তিন মাস আগে অস্ত্রগুলো এখানে রাখা হয়েছিল" - পুলিশের মহাপরিদর্শক শহীদুল হক সাংবাদিকদের ঘটনাস্থলে এ কথা জানান।

উর্ধতন কর্মকর্তাদের নিয়ে তিনি এরই মধ্যে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

তবে ঠিক কী উদ্দেশ্যে এই বিপুল পরিমান অস্ত্র পূর্বাচলে রাখা হয়েছিল, তা এখনও পরিস্কার নয়।

মি. হক ধারণা করছেন যে হয়তো বড় ধরণের কোন নাশকতা চালানোর উদ্দেশ্য নিয়ে অস্ত্রগুলো সংগ্রহ করা হয়েছিল।

তিনি সাংবাদিকদের বলেন, "তদন্ত জাস্ট শুরু হয়েছে, সময় লাগবে। তদন্ত করার পর, জিজ্ঞাসাবাদ করার পর আরও হয়তো আসামী গ্রেফতার হবে। ডিটেলস যখন জানতো পারবো, তখন আপনাদের জানাবো"।

সম্পর্কিত বিষয়