'গুলশানের বাড়ি ছাড়তে হবে মওদুদ আহমদকে'

Image caption মওদুদ আহমেদ বিরোধী দল বিএনপির শীর্ষ পর্যায়ের নেতা

বিএনপির শীর্ষস্থানীয় নেতা মওদুদ আহমদের গুলশানের বাড়ির মালিকানা নিয়ে রিভিউ আবেদন খারিজ করে দিয়েছে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

ফলে মিস্টার আহমদকে তার গুলশানের বাড়ি ছাড়তে হবে বলে বলছেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

তবে রায়ের পর মিস্টার আহমদ তাৎক্ষনিক প্রতিক্রিয়ায় সাংবাদিকদের বলেন বাড়িটি ছাড়ার প্রশ্ন আসেনা কারণ বাড়ির মালিক সরকার নয়।

তিনি বলেন আদালত সরকারকে বাড়ির দখল স্বত্ব দেয়নি, তাই বাড়ি ছাড়ার প্রশ্ন আসেনা।

তিনি বাড়ির মূল মালিকের সাথে বোঝাপড়া করবেন বলেও জানান।

তবে অ্যাটর্নি জেনারেল বলছেন তার (মওদুদ আহমদ) ভাই মনজুর আহমেদের মামলাই ডিসমিস হয়ে গেছে সর্বোচ্চ আদালতে, সেখানে তিনি ওই বাড়িতেই থাকবেন-একজন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব হিসেবে এর চেয়ে ধৃষ্টতা আর কিছু হতে পারেনা।

ছবির কপিরাইট ফোকাস বাংলা
Image caption বাংলাদেশের সুপ্রিম কোর্ট

মওদুদ আহমদের ভাই মনজুর আহমদের নামে গুলশানের বাড়িটির নাম জারি ও ডিক্রি জারি করতে হাইকোর্টের দেওয়া রায় বাতিল করে আপিল বিভাগ যে রায় দিয়েছিল তা বহাল রাখা হয়েছে।

আপিল বিভাগের রায় পুনর্বিবেচনা চেয়ে মঞ্জুর আহমদের করা এ সংক্রান্ত রিভিউ পিটিশন পর্যবেক্ষণসহ আজ খারিজ করে দিয়েছে আপিল বিভাগ।

তবে এই বাড়ির বিষয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনের দায়ের করা মামলা বাতিল করে আপিল বিভাগ যে রায় দিয়েছে তা বহাল রাখা হয়েছে।

দুদকের দায়ের করা মামলার অভিযোগে অনুযায়ী, বাড়িটির মালিক ছিলেন পাকিস্তানি নাগরিক মো. এহসান।

১৯৬০ সালে তৎকালীন ডিআইটির (রাজউক) কাছ থেকে এক বিঘা ১৩ কাঠার এ বাড়ির মালিকানা পান এহসান।

১৯৬৫ সালে বাড়ির মালিকানার কাগজপত্রে এহসানের পাশাপাশি তাঁর স্ত্রী অস্ট্রিয় নাগরিক ইনজে মারিয়া প্লাজের নামও অন্তর্ভুক্ত হয়।

১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ শুরু হলে স্ত্রীসহ ঢাকা ত্যাগ করেন এহসান।

তাঁরা আর ফিরে না আসায় ১৯৭২ সালে এটি পরিত্যক্ত সম্পত্তির তালিকাভুক্ত হয়।

এর পর ১৯৭৩ সালের ২ আগস্ট মওদুদ তাঁর ইংল্যান্ডপ্রবাসী ভাই মনজুরের নামে একটি ভুয়া আমমোক্তারনামা তৈরি করে বাড়িটি সরকারের কাছ থেকে বরাদ্দ নেন বলে মামলায় অভিযোগ করে দুদক।

গত প্রায় তিন দশক করে এই বাড়িতে বসবাস করে আসছেন মওদুদ আহমদ।

আরও পড়ুন:

লন্ডনে ব্যস্ত এলাকায় সন্ত্রাসী হামলায় নিহত ৬

পাহাড়ে সংঘাত নিরসনে কি করছে প্রশাসন?