ব্রাজিলে সাইকেল চুরির সন্দেহে কিশোরের কপালে উল্কি এঁকে দেয়া হলো 'আমি চোর'

  • ১৩ জুন ২০১৭
ছবির কপিরাইট Google
Image caption সাইকেল চুরির সন্দেহে কপালে 'আমি চোর' লিখে দেবার ঘটনাটি ভিডিও করা হয়

সাইকেল চুরি যাবার ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্রাজিলে একটি ১৭ বছরের কিশোরের কপালে উল্কি এঁকে 'আমি একজন চোর' কথাটি লিখে দেবার পর পুলিশ দুজন লোককে গ্রেফতার করেছে।

পুলিশ বলছে, লোক দুটির বিরুদ্ধে নির্যাতনের অভিযোগ আনা হয়েছে। উল্কি এঁকে দেবার ঘটনাটি ভিডিও করাও হয়। ঘটনাটি ঘটেছে সাও পাওলো রাজ্যের সাও বার্নার্দো দো কাম্পো শহরে।

ওই দুই ব্যক্তি বলছে, ছেলেটি একটি সাইকেল চুরি করার চেষ্টা করেছিল। তবে ছেলেটি এ কথা অস্বীকার করেছে।

লোক দুটি ওই কিশোরের কপালে উল্কি এঁকে পর্তুগীজ ভাষায় 'আমি একজন চোর' কথাটি লিখে দেবার কথা স্বীকার করেছে। তাদের বক্তব্য. চুরির শাস্তি হিসেবেই তারা এটা করেছে।

কিন্তু ছেলেটি বলছে, সে মাতাল অবস্থায় সাইকেলটির ওপর পড়ে গিয়েছিল - কিন্তু তা চুরির চেষ্টা করছিল না। তার কথায়, লোক দুটি তার হাত-পা বেঁধে ফেললে সে অনুনয় করে যে উল্কিটি যেন তার হাতে দেয়া হয়. বা শাস্তি হিসেবে হাত-পা ভেঙে দেয়া হয়। কিন্তু তারা বলে, উল্কি তার কপালেই আঁকা হবে। এ কথা বলে তারা হাসতে থাকে।

এর পর তাকে চেয়ারে বসিয়ে একটি ট্যাটু মেশিন দিয়ে কপালে 'আমি চোর লিখে দেয়া হয়। ঘটনাটির ভিডিও করছিল যে লোকটি, সে-ও তখন হাসছিল।

এর পর ছেলেটি যাতে মাথার চুল দিয়ে উল্কিটি ঢেকে রাখতে না পারে - সে জন্য তার চুলও ছোট করে ছেঁটে দেয়া হয়।

আরো পড়ুন

বাংলাদেশে তিন জেলায় পাহাড় ধসে ৬১ জনের মৃত্যু

'ইরান ও তুরস্কের খাবার সৌদি আরবের চেয়ে ভালো'

কিশোরটির পরিবার বলছে, ছেলেটির মানসিক সমস্যা রয়েছে এবং সে মাদক সেবনও করে থাকে। শুক্রবার অনলাইনে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওটি দেখে তারা ছেলেকে চিনতে পারে।

এখন এই উল্কি মুছে ফেলার জন্য ব্রাজিলে অনলাইনে চাঁদা তোলার জন্য প্রচারাভিযান শুরু হয়েছে। তারা ইতিমধ্যেই ৫ হাজার ৮০০ ডলার তুলেছে।