বাংলাদেশে কি এবারে বেশি বৃষ্টিপাত হচ্ছে?

টানা কয়েক ঘণ্টা বৃষ্টি হলেই ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় তৈরি হয় জলাবদ্ধতা আর যানজট। ছবির কপিরাইট ফোকাসবাংলা
Image caption টানা কয়েক ঘন্টা বৃষ্টি হলেই ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় তৈরি হয় জলাবদ্ধতা আর যানজট।

বাংলাদেশে সোমবারও আকাশ কালো করে বৃষ্টি শুরু হয় সকাল থেকে। ঘন্টা দুয়েকের ভারী বর্ষণে রাস্তায় পানি জমে যায় ঢাকার অনেক এলাকায়।

আবহাওয়া অফিস বলছে আগামী দুদিন আরও বৃষ্টি হবে এবং কিছু এলাকায় ভূমিধ্বসেরও আশঙ্কা রয়েছে।

বাংলাদেশে অন্যান্য বছরের তুলনায় এবার জুন মাসে বৃষ্টির পরিমাণ বেশি হয়েছে, এমনটাই তারা বলছে। এর আগে গত এপ্রিল মাসে তিন দশকের মধ্যে সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত হয় বলে জানানো হয়েছিল।

কেন এবার এত ব্যাপক বৃষ্টিপাত?

আবহাওয়াবিদ আরিফ হোসেন বিবিসি বাংলাকে বলেন, "এ বছরের জুন মাসে অন্যান্য কয়েক বছরের তুলনায় বেশি বৃষ্টি হয়েছে। সাধারণত ভারী বর্ষণ হয় জুলাই-আগস্ট-সেপ্টেম্বর মাসে। আর সবচেয়ে বেশি বৃষ্টি হয় জুলাই-আগস্ট মাসে। সেখানে এবার জুন মাসেই একটানা বেশি বৃষ্টি হয়েছে"।

সাম্প্রতিক বছরগুলোর মধ্যে চলতি বছরের চলতি জুন মাসের ১৮ তারিখ পর্যন্ত ২৯ শতাংশ বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়েছে। যা এখনো পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি। তবে মাসের বাকি দিনগুলোতে বৃষ্টি কেমন হয় সেটার ওপর ভিত্তি করে রেকর্ড কি-না সেটি বলা যাবে।

আরিফ হোসেন বলেন, "মৌসুমি বায়ু সক্রিয় থাকায় বৃষ্টি হচ্ছে। পুরো মাস এরকম যাবে। গতবছর এইসময় তা এতটা সক্রিয় ছিল না"।

আরো পড়ুন:

মধ্য আকাশে জন্ম, আজীবন বিনামূল্যে ভ্রমণের সুবিধা

দুর্গম পাহাড় থেকে মুসা ইব্রাহিমকে উদ্ধার

ছবির কপিরাইট ফোকাস বাংলা
Image caption বৃষ্টিতে ব্যাপক জলাবদ্ধতা দেখা যায় চট্টগ্রামসহ অনেক স্থানে। (ফাইল ছবি)

সম্প্রতি পার্বত্য এলাকায় ভারী বর্ষণের পরে পাহাড় ধসে ব্যাপক প্রাণহানির ঘটনা প্রসঙ্গে তিনি জানান, সেখানে ভারীবর্ষণের পূর্বাভাস দেয়া হয়েছিল আগেই। সেইসাথে ভূমিধ্বসের আশঙ্কার কথাও বলা হয়েছিল।

মি. হোসেন বলেন, ১০ই জুন আবহাওয়া অফিস থেকে সতর্কবাণী দেয়া হয়েছিল যে, ১১ই জুন থেকে ভারী বর্ষণ হতে পারে।

আবার ভারী বর্ষণ ও ভূমিধ্বসের আশঙ্কা

আবহাওয়া অফিস বলছে, আগামী দুইদিন ভারী বর্ষণের সতর্কতা জারি করা হয়েছে। বরিশাল, চট্টগ্রাম, সিলেট, ময়মনসিংহ ও রংপুরে বেশি বৃষ্টি হবে।

আর চট্টগ্রাম ও সিলেট এলাকায় পাহাড় ধসের আশংকার কথাও বলা হয়েছে সতর্কীকরণ কেন্দ্র থেকে।

সাধারণত ২৪ ঘণ্টায় ৪৪ মিলিমিটার থেকে ৮৯ মিলিমিটার পর্যন্ত বৃষ্টিকে ভারী বর্ষণ এবং ৮৯ মিলিমিটার থেকে তার বেশি বৃষ্টিকে অতি ভারী বর্ষণ বলা হয়।

ছবির কপিরাইট ফোকাসবাংলা
Image caption গত এপ্রিলে গত তিন দশকের মধ্যে সবোর্চ্চ বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়। আর এখন পর্যন্ত জুন মাসে অন্য বছরের তুলনায় বেশি বৃষ্টি হয়েছে এবছর।

তবে জুন মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহের পর থেকে এখন যে বৃষ্টি হচ্ছে তাকে আষাঢ় মাসের স্বাভাবিক বৃষ্টি বলেই উল্লেখ করেন আবাহওয়াবিদ মি হোসেন।

তিনি বলেন, "কখনো মনসুন একটু দেরিতে সেট হয়। এবছর একটু আগেই হয়েছে। সারাদেশে সাধারণত জুন মাসের শেষ সপ্তাহে হয়। এবার সেটি জুনের ১২ তারিখে শুরু হয়েছে।"

বাংলাদেশে এবছরের এপ্রিল মাসে গত তিন দশকের মধ্যে সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত হয় বলে এর আগে জানায় আবহাওয়া অধিদপ্তর।

২০১৭ সালের ২৩শে এপ্রিল পর্যন্ত স্বাভাবিকের তুলনায় ১১৯ শতাংশ বেশি বৃষ্টি হয়েছে।

আরো পড়তে পারেন:

কেন কাতারের পাশে দাঁড়িয়েছে তুরস্ক?

লন্ডনে মসজিদের কাছে সন্ত্রাসী হামলা: কী জানা যাচ্ছে?

সম্পর্কিত বিষয়