ফখরুলের উপর হামলায় হাছান মাহমুদকে দুষছে বিএনপি

ছবির কপিরাইট FOCUSBANGLA
Image caption রাঙ্গামাটি যাবার পথে রোববার মির্জা ফখরুলের গাড়িবহরে হামলার ঘটনায় কয়েকজন আহত হয় বলে দলের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

বাংলাদেশের অন্যতম প্রধান রাজনৈতিক দল বিএনপি'র মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামের উপর হামলার জন্য দলটির তরফ থেকে আওয়ামী লীগ নেতা হাছান মাহমুদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলা হচ্ছে।

মঙ্গলবার বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, বিএনপি'র মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর দলের সিনিয়র নেতাদের নিয়ে পূর্বঘোষিত সময়সূচী অনুযায়ী রাঙামাটি যাচ্ছিলেন।

তিনি অভিযোগ করেন, বিএনপি নেতারা কোন পথে রাঙামাটি পৌঁছবেন সেটি স্থানীয় প্রশাসনের জানার কথা।

মি: রিজভী আরো অভিযোগ করেন, সে রাস্তায় নিরাপত্তার ব্যবস্থা না করে ক্ষমতাসীন দলের সাথে সম্পৃক্ত স্থানীয় নেতা-কর্মীদের হামালার সুযোগ করে দেয়া হয়েছে।

"ঐ অঞ্চলের যিনি এমপি তিনি আওয়ামী লীগের একজন গুরুত্বপূর্ণ নেতা। তিনি হামলার ঘটনাটিকে সাজানো নাটক বলেছেন। তার মুখ থেকে যখন এ ধরনের বানোয়াট কথা আসে তখন বুঝতে হবে যে মহাসচিবের উপর হামলার ঘটনা পরিকল্পিত, "বলছিলেন মি: রিজভী।

পাহাড় ধসে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা রাঙ্গামাটি যাবার পথে গত রবিবার সকাল সাড়ে দশটার দিকে চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া এলাকায় এই হামলার ঘটনা ঘটে। গাড়িবহরে দশ থেকে বারোজন বিএনপি নেতা ছিলেন। মি: আলমগীর ও আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরীসহ এ ঘটনায় চারজন আহত হয়েছেন বলে দলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে ।

সে এলাকার সংসদ সদস্য আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদ।

বিএনপি নেতা রুহুল কবির রিজভী বলেন, হাছান মাহমুদ এ হামলার নিন্দা না জানিয়ে উল্টো সেটিকে সাজানো নাটক হিসেবে বর্ণনা করেছেন।

মি: রিজভী বলেন, " উনি (হাছান মাহমুদ) তো আছেন। যারা হামলা করেছে তারা তো সব ওনার লোকজন। তাহলে নিশ্চয়ই তিনি জড়িত আছেন। তাকেও হয়তো উপরের কেউ নির্দেশ দিয়েছেন"

আওয়ামী লীগ নেতা হাছান মাহমুদ বিবিসি বাংলাকে বলেন, বিএনপি মহাসচিবের গাড়ি বহরে হামলার ঘটনায় তাকে ব্যক্তিগতভাবে দোষারোপের কোন সুযোগ নেই। মি: মাহমুদ বলেন, ঘটনাটি যখন ঘটেছে তখন তিনি ঢাকায় ছিলেন।

মি: মাহমুদ বলেন, "এ ঘটনাটি দু:খজনক এবং অনভিপ্রেত। এটা এভাবে ঘটা মোটেই ঠিক হয়নি। আমি যেটা শুনেছি তারা যাবার সময় ইছাখালি সদরের উপর দিয়ে যাওয়ার সময় বিএনপি মহাসচিবকে দেখার জন্য উৎসুক মানুষজন এমনিতেই ছিল।তারপর দুজন পথচারীর গায়ে গাড়ি ধাক্কা লেগে তারা সামান্য আহত হয়। এর প্রেক্ষিতে তাদের সাথে বাক বিতণ্ডা হয় এবং এরপরে অনভিপ্রেত,দু:খজনক ঘটনাটি ঘটেছে।"

বিএনপি অভিযোগ করছে যারা মির্জা ফখরুল ইসলামের গাড়িতে হামলা চালিয়েছে তারা ক্ষমতাসীন দলের সাথে সম্পৃক্ত।

এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে মি: মাহমুদ বলেন, "যে এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে সেটি জনাকীর্ণ এলাকা এবং সেখানে দুই-একজন আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মী থাকতে পারে। কারণ পুরো নির্বাচনী এলাকায় আওয়ামী লীগের ব্যাপক সমর্থন আছে।"

আওয়ামী লীগের এ নেতা পাল্টা অভিযোগ করেন, বিএনপি নেতারা যে রাস্তা দিয়ে যাবার কথা ছিল সে সম্পর্কে পুলিশকে জানায়নি।

ঘটনার পর পুলিশের তরফ থেকে বিএনপি নেতাদের রাঙামাটি পৌঁছে দেবার কথা বলা হলেও তারা সেদিকে না গিয়ে চট্টগ্রামে ফিরে এসেছে বলে হাছান মাহমুদ উল্লেখ করেন।

অন্যদিকে আওয়ামী লীগের আরেকজন সিনিয়র নেতা মাহবুবুল আলম হানিফ সোমবার বিবিসিকে বলেন, বিএনপি মহাসচিবের ওপর হামলার ঘটনার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে, যদিও এটিকে একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা বলেই মনে করছেন তারা।