দেউলিয়া ঘোষণা করা হলো সাবেক উইম্বলডন চ্যাম্পিয়ন বরিস বেকারকে

বরিস বেকার উইম্বলডন শিরোপা জিতেছেন ১৯৮৫, ১৯৮৬ ও ১৯৮৯ সালে। ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption বরিস বেকার উইম্বলডন শিরোপা জিতেছেন ১৯৮৫, ১৯৮৬ ও ১৯৮৯ সালে।

টেনিসের কিংবদন্তি জার্মান তারকা বরিস বেকার যিনি তিনবার উইম্বলডন শিরোপা জয় করেছেন, তাকে দেউলিয়া ঘোষণা করেছে লন্ডনের আদালত৷

দীর্ঘদিন ধরেই ঋণে জর্জরিত ছিলেন গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ী নোভাক জকোভিচের সাবেক কোচ ও টিভি ধারাভাষ্যকার ৪৯ বছর বয়সী বরিস বেকার৷

বিবিসি সহ অন্যান্য মিডিয়ায় বিশ্লেষক হিসেবে দেখা যায় বরিস বেকারকে।

যদিও আদালতের এই শুনাননিতে তিনি উপস্থিত ছিলেন না।

বেসরকারি ঋণদাতা সংস্থা আরবাথনট ল্যাথাম অ্যান্ড কোং থেকে ২০১৫সালে ঋণ নিয়েছিলেন মি: বেকার৷কিন্তু সময়মতো ঋণ পরিশোধ করতে পারেননি তিনি৷

বুধবার লন্ডনে আদালতের কাছে বরিস বেকারের আইনজীবী আরও ২৮ দিন সময় চেয়েছিলেন৷

ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption নোভাক জকোভিচের কোচ ছিলেন বরিস বেকার

কিন্তু আদালত তা প্রত্যাখ্যান করে জানিয়ে দেয় যে, বরিস বেকার এই ঋণ শোধ করতে পারবে বলে তারা মনে করছে না৷ মি: বেকারের ঋণের যে বোঝা তা অকল্পনীয়, ফলে তাকে দেউলিয়া ঘোষণা করলো আদালত৷

বরিস বেকারের সামনে ঋণ শোধ করার একটা শেষ সুযোগ রয়েছে৷ মালোরকায় মি: বেকারের প্রায় ৭মিলিয়ন ইউরোর সম্পত্তি রয়েছে৷ সেটা বন্ধক রেখেই ঋণমুক্ত হতে পারেন মি: বেকার৷

টেনিসের সাবেক এক নম্বর তারকার আইনজীবী জন ব্রিগসের মতে এই চুক্তিটা স্পেনের আদালত মাসখানেকের মধ্যেই অনুমোদন করবে৷

বরিস বেকার উইম্বলডন শিরোপা জিতেছেন ১৯৮৫, ১৯৮৬ ও ১৯৮৯ সালে।

অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের শিরোপা জিতেন ১৯৯১ ও ১৯৯৬ সালে। ১৯৮৯ সালে তিনি ইউএস ওপেন চ্যাম্পিয়নশিপও জিতেন।

১৯৮৮ ও ১৯৮৯ সালে পশ্চিম জার্মানির ডেভিস কাপ জয়ের পেছনেও ছিল বরিস বেকারের ভূমিকা।

আরো পড়ুন:

আলোচিত অভিনেত্রী হ্যাপি যেভাবে 'আমাতুল্লাহ' হলেন

আয়কর দিলে কি মুসলিমদের যাকাত দিতে হয়?

সৌদি আরবের ভবিষ্যত বাদশাহ সম্পর্কে যা জানা যাচ্ছে

ছবির কপিরাইট Getty Images

সম্পর্কিত বিষয়