পোল্যান্ডে হয়রানির শিকার জার্মানীর মুসলিম ছাত্রীরা

ছবির কপিরাইট JOE KLAMAR
Image caption পোল্যান্ডের আউশউইৎজ কনসেনট্রেশন শিবির

একটি জার্মান স্কুলের ছাত্রছাত্রীরা পোল্যান্ডে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধকালীন ইহুদি নিধনযজ্ঞের স্মৃতিসৌধে বেড়াতে গেলে - বিশেষ করে মুসলিম ছাত্রীরা স্থানীয়দের হুমকি, বিদ্রূপ এবং খারাপ ব্যবহারের শিকার হয়েছে।

ওই স্কুলের শিক্ষাসফরটির আয়োজকরা বলছেন, তারা বার্লিনে পোলিশ দূতাকাসে এ নিয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করবেন।

তারা বলছেন, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় জার্মানির নাৎসী শাসকরা পোল্যান্ডে যে ইহুদি নিধনযজ্ঞ চালিয়েছিল - তার স্মৃতিবাহী একাধিক জায়গায় শিক্ষা সফরে গিয়েছিল ওই জার্মান স্কুলটির ছাত্রছাত্রীরা।

সেসময় বিশেষ করে স্কুলের মুসলিম ছাত্রীরা নানারকম খারাপ ব্যবহারের শিকার হয়।

একটি মেয়েকে ছুরি দেখিয়ে হুমকি দেয়া হয়, আরেকজনের মুখে পানি ছিটিয়ে দেয়া হয়। অন্য আরেকজনের প্রতি থুথু নিক্ষেপ করা হয়।

স্কুলের একটি মেয়ে এক দোকানে ঢুকে ফারসীতে কথা বলছিল বলে তাকে দোকান থেকে বের করে দেয়া হয়।

বলা হয়, পুলিশ এ ব্যাপারে কোন সাহায্যই করে নি।

শিক্ষাসফরের আয়েজকদের পক্ষ থেকে হ্যান্স-ক্রিশ্চিয়ান ইয়াশ বলে, তিনি ইহুদি নিধনযজ্ঞ সম্পর্কে জানতে আসা মুসলিম ছেলেমেয়েদের প্রতি এরকম বর্ণবাদী আচরণ দেখে গভীরভাবে মর্মাহত হয়েছেন।

বিবিসি বা্ংলায় আরো পড়ুন:

গুগলকে বিশাল জরিমানা, কিভাবে নিয়ম ভাঙছিল তারা?

কাশ্মীরে পুলিশের চাকরি কতটা কঠিন?

পাড়া-মহল্লার ক্লাব সংস্কৃতির ভিন্ন ধারা শহরে

বিউটি পার্লারগুলোর কর্মীরা অধিকাংশই বিভিন্ন ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর

সম্পর্কিত বিষয়