বাংলাদেশের কুষ্টিয়ায় তিন 'নারী-জঙ্গি' গ্রেফতার

কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে পুলিশ অভিযান চালায় ছবির কপিরাইট Google Map
Image caption কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে পুলিশ অভিযান চালায়

জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে পুলিশ তিনজন নারীকে গ্রেফতার করেছে।

টিনের এই বাড়িটি শুক্রবার মধ্যরাত থেকে ঘিরে রাখে পুলিশ। পরে বাড়িটিতে অভিযান চালিয়ে সেখান থেকে তাদেরকে আটক করা হয়।

পুলিশ বলছে, তাদের সাথে দুটো বাচ্চাও ছিলো।

আরো পড়ুন: গুলশান হামলার এক বছর: যেভাবে কেটেছিল ভয়াল সেই রাত

হোলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলার এক বছর: এখনো শঙ্কা কাটেনি

ঢাকার গুলশানে বড় রকমের জঙ্গি হামলার ঠিক এক বছরের দিনে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে ভেড়ামারার এই বাড়িটিতে পুলিশ অভিযান চালালো। কাউন্টার টেররিজম ইউনিট ও জেলা পুলিশ যৌথভাবে এই অভিযানটি চালিয়েছে।

গ্রেফতার হওয়া এই নারীদের পরিচয়ও প্রকাশ করেছে পুলিশ।

কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের একজন কর্মকর্তা মহিবুল ইসলাম খান বলেছেন, গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে রয়েছেন নিউ জেএমবির বর্তমান আমির বা প্রধান আইয়ুব বাচ্চুর স্ত্রী তিথি, সেকেন্ড ইন কমান্ড বা দ্বিতীয় শীর্ষ নেতা আরমান আলীর স্ত্রী সুমাইয়া। এবং অন্যজন টলি বেগম।

পুলিশ বলছে, টলি বেগমই ভেড়ামারা উপজেলার বামনপাড়া তালতলা এলাকায় বাড়িটি ভাড়া করেছিলো।

আরো পড়ুন: ২৫ বছরের প্রেমের পর মেসির বিয়ে: 'শতাব্দীর শ্রেষ্ঠ বিয়ে'

কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের তথ্যের ভিত্তিতে এই বাড়িটিকে জঙ্গি আস্তানা বলে প্রথমে সন্দেহ করা হয়েছিলো। বলা হচ্ছে, জঙ্গিরা কয়েক মাস আগে এই বাড়িটি ভাড়া করেছিলো।

পুলিশের কর্মকর্তারা বলছেন, অভিযানের সময় ওই বাড়িটির ভেতর থেকে কিছু বোমা, গান পাউডার, পিস্তল এবং সুইসাইড ভেস্ট উদ্ধার করা হয়েছে।

বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল এখন ওই বাড়িটিতে কাজ করছে।

শনিবার বিকেল নাগাদ শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা ওই বাড়িটিকে ঘিরে রেখেছে।

অভিযানের সময় নিরাপত্তার কারণে আশেপাশের বাড়ি থেকে লোকজনকে সরিয়ে নেওয়া হয়।

পুলিশ বলছে, নব্য জেএমবির জঙ্গিরাই গুলশানের হোলি আর্টিজান বেকারিতে হামলা চালিয়েছিলো।