কাতারকে নতুন করে ৪৮ ঘণ্টার সময়সীমা দিল আরব দেশগুলো

কাতারের রাস্তায় দেশটির আমিরের প্রতিকৃতির পাশে নিজেদের মন্তব্য লিখছেন একজন ছবির কপিরাইট রয়টার্স
Image caption কাতারের রাস্তায় দেশটির আমিরের প্রতিকৃতির পাশে নিজেদের মন্তব্য লিখছেন একজন

কাতারকে নতুন করে ৪৮ ঘণ্টার সময়সীমা বেধে দিয়েছে সৌদি আরব ও তার মিত্র দেশগুলো।

এর মানে বুধবার কায়রোতে সৌদি আরব, মিসর, সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং বাহরাইনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা যে বৈঠকে বসবেন, সেখানে এ সংক্রান্ত আলোচনা করেই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে দেশগুলো।

ইরানের সঙ্গে সম্পর্ক হ্রাস, মুসলিম ব্রাদারহুডের ওপর থেকে সমর্থন প্রত্যাহার, আল জাজিরা টেলিভিশন বন্ধ করা এবং তুরস্কের সামরিক ঘাঁটি তুলে দেয়াসহ যে ১৩ টি শর্ত দিয়েছিল এই দেশগুলো, তা মানতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে কাতার।

সেসব দাবি মানার সময়সীমা শেষ হয়েছে রোববার মধ্যরাতে।

তবে, আজ সোমবার এ নিয়ে নিজেদের আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া সংকট নিরসনে মধ্যস্থতাকারী কুয়েতের কাছে পৌঁছে দেয়া হবে বলে জানিয়েছে কাতার।

সকালে কাতারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী দেশটির আমিরের পাঠানো চিঠি পৌঁছে দেবেন কুয়েতের আমিরের কাছে।

সন্ত্রাসে অর্থায়নের অভিযোগ তুলে গত মাসে সৌদি আরব, মিসর, বাহরাইন ও সংযুক্ত আরব আমিরাত কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন এবং পরে অবরোধ আরোপের পর থেকে মারাত্মক কূটনীতিক ও অর্থনৈতিক চাপের মধ্যে রয়েছে কাতার।

যদিও আগেই কাতার জানিয়ে দিয়েছে, নিজেদের সার্বভৌমত্ব ক্ষুন্ন করে এমন কোন শর্তের কাছে তারা নতি স্বীকার করবে না।

গাল্ফ দেশগুলোর সাথে সংহতি জানিয়ে পরে লিবিয়া, ইয়েমেন ও মালদ্বীপও কাতারের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে।

কাতার শুরু থেকেই অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে।

আরো পড়ুন:

আরবদের হটিয়ে যেভাবে ইসরায়েল রাষ্ট্রের জন্ম হয়েছিল

কাতার সংকট: সৌদি আরব কি বাড়াবাড়ি করছে?

কাতার সংকটে যেভাবে শাস্তি পাবে গাজায় ফিলিস্তিনিরা

'মার্কিন নারীরা বিপরীত লিঙ্গের সঙ্গে একা খেতে চান না'

সম্পর্কিত বিষয়