উত্তর কোরিয়ায় দরকার হলে সামরিক হস্তক্ষেপ করতে প্রস্তুত যুক্তরাষ্ট্র

জাতিসংঘে যুক্তরাষ্ট্রের দূত নিকি হ্যালি ছবির কপিরাইট Reuters
Image caption জাতিসংঘে যুক্তরাষ্ট্রের দূত নিকি হ্যালি

উত্তর কোরিয়ার দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার জের ধরে যুক্তরাষ্ট্র বলছে, দরকার হলে তারা দেশটির সামরিক শক্তি প্রয়োগ করতে প্রস্তুত রয়েছে।

জাতিসংঘে যুক্তরাষ্ট্রের দূত নিকি হ্যালি বলেছেন, জাতিসংঘে পিয়ংইয়ংয়ের বিরুদ্ধে খুব তাড়াতাড়ি নতুন প্রস্তাব তোলা হবে। দেশটির ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা একপ্রকার সামরিক উস্কানি বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

মঙ্গলবার দূরপাল্লার ওই ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করে উত্তর কোরিয়া। বলা হচ্ছে, পারমাণবিক বোমা বহনে সক্ষম এই ক্ষেপণাস্ত্র যুক্তরাষ্ট্রের ভূখণ্ডে আঘাত হানতে সক্ষম।

এই পরীক্ষার মাধ্যমে কূটনৈতিক সমাধানের পথ বন্ধ হয়ে যাচ্ছে বলে বলেন মিজ হ্যালি। তবে নিজেদের এবং মিত্রদের রক্ষা করার পুরো সামর্থ্য যুক্তরাষ্ট্রের রয়েছে।

তিনি বলছেন, সেই সামর্থ্যের একটি অংশ আমাদের সামরিক শক্তির মধ্যে নিহিত। বাধ্য হলে আমার সেই ক্ষমতা ব্যবহার করবো, তবে সেই পথে আমরা হাটতে চাই না।

তার এই বক্তব্যের কয়েক ঘণ্টা পরে যৌথ সামরিক মহড়ার অংশ হিসাবে একাধিক ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়া।

আরো পড়ুন:

বনানীতে আবার জন্মদিনের কথা বলে ধর্ষণ

'অনেক মানুষকে গোপনে আটকে রেখেছে নিরাপত্তা বাহিনী'

'মা অসুস্থ, স্ত্রীর সঙ্গে দেখা হয়েছে ৮ বছর আগে, দেশে যেতে চাই'

শোবার ঘর থেকে বেরিয়ে এলো ২৭টি গোখরা সাপ