'মুসলিমরা ডোনাট খায় না' গুজবের নেপথ্যে

Doughnut
Image caption 'ডোনাট'

সোশ্যাল মিডিয়ায় আবারও এই বলে মিথ্যে গুজব ছড়ানো হচ্ছে যে মুসলিমরা 'ডোনাট' খায় না। আর এই গুজব ছড়াচ্ছে মুসলিমরাই। কেন তারা এই কাজ করছেন?

মূলত ইসলামবিদ্বেষী ব্যঙ্গ-বিদ্রুপের জবাব দিতে তারা এই রসিকতা বেছে নিয়েছেন।

২০১৪ সালে প্রথম সোশ্যাল মিডিয়ায় গুজব ছড়ানো হয় যে 'ডোনাট' হালাল নয়, কাজেই এটি মুসলিমদের খাওয়া নিষেধ। টুইটারে গত তিন বছর ধরে এই গুজব ছড়ানো হয়।

ছবির কপিরাইট @abdulmshaheed/Twitter
Image caption মুসলিমরাই রসিকতা করে ছড়িয়ে দিচ্ছেন এই গুজব

২০১৬ সালে কিছু মসজিদের বাইরে শুকরের মাংস রেখে যাওয়ার ঘটনার পর একই গুজব ছড়ানো হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়।

একজন তখন টুইটারে মজা করে লেখেন, "ডোনাট হারাম। দয়া করে আমাদের মসজিদের বাইরে গাদা গাদা ডোনাট রেখে যাবেন না, আমরা এটা ঘেন্না করি।"

ছবির কপিরাইট @fvrdsa/Twitter

তবে এই রসিকতা বুঝতে না পেরে অনেকেই বিভ্রান্ত হয়েছেন। একজন টুইটারে প্রশ্ন করেন, "ডোনাট হারাম হলো কিভাবে?"

কিন্তু এর পর টুইটারে আরও পোস্ট ছড়িয়ে দেয়া হয় ডোনাট ইসলামে নিষিদ্ধ এমন কথা বলে।

ছবির কপিরাইট @LI_politico/Twitter

এবছর ডোনাট নিয়ে এই গুজব আবার নতুন করে ছড়াতে থাকে সাংবাদিক মেহেদী হাসান এটি টুইট করার পর।

তিনি লিখেন, "আমার অনেকদিনের বিশ্বাস, আমরা যদি 'ডোনাট হারাম' এমন গুজব ছড়িয়ে দিতে পারি তাহলে আমাদের লোকে এখন থেকে ডোনাট দিয়ে আক্রমণ করবে।"

আরেকজন এর উত্তরে মজা করে অনলাইনে লেখেন, "আমি স্টারবাকস, টাকিস, পিজ্জা, কুকি, আইফোন, প্লেস্টেশন ফোর সবকিছু ঘৃণা করি। দয়া করে আমাকে এসব দিয়ে অপমান করার চেষ্টা করো।"

সম্পর্কিত বিষয়