টয়লেটে গিয়ে সিংহের হাতে প্রাণ হারাল কিশোরী

একটি সংরক্ষিত অরণ্যের খুব কাছেই সিংহটি ওই হামলা চালিয়েছে বলে জানা যাচ্ছে ছবির কপিরাইট AFP
Image caption একটি সংরক্ষিত অরণ্যের খুব কাছেই সিংহটি ওই হামলা চালিয়েছে বলে জানা যাচ্ছে

রাতের বেলায় কুঁড়েঘরের পেছনে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে গিয়ে গ্রামীণ জিম্বাবোয়েতে একটি বাচ্চা মেয়ে সিংহের আক্রমণে মারা গেছে বলে সে দেশের পুলিশ কর্তৃপক্ষ নিশ্চিত করেছে।

পুলিশের একজন মুখপাত্র, অ্যাসিস্ট্যান্ট ইন্সপেক্টর কুডাকোওয়াশে ডেহওয়াটে ক্রনিকল খবরের কাগজকে জানিয়েছেন নিহত মেয়েটির নাম ছিল মিশেল মিউচেনি, বয়স মাত্র দশ বছর।

বাচ্চা মেয়েটির এক চাচি দেখতে পান, সিংহটি তার দেহ টানতে টানতে জঙ্গলের ঝোপের দিকে নিয়ে যাচ্ছে।

পরে তাদের বাড়ি থেকে প্রায় ৩০০ মিটার দূরে মেয়েটির ক্ষতবিক্ষত দেহ খুঁজে পাওয়া যায় বলে পুলিশ জানিয়েছে।

এই মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার রাতে জিম্বাবোয়ের চিরেদজি শহরের কাছে, যা রাজধানী হারারে থেকে প্রায় পৌনে তিনশো মাইল দূরে।

জিম্বাবোয়ের এই দক্ষিণ-পূর্ব প্রান্তে মানুষ ও বন্য প্রাণীদের মধ্যে সংঘাতের ঘটনা অবশ্য একেবারেই বিরল নয়।

গত মাসেই নিকটবর্তী মোয়েনজির প্রধান মারান্ডা সে দেশের ন্যাশনাল পার্ক অথরিটির কাছে আবেদন করেছিলেন, জঙ্গল থেকে ছিটকে বেরিয়ে আসা সিংহরা গ্রামবাসীদের গরু-ছাগল ইত্যাদি খেয়ে নিচ্ছে - তার প্রতিকারে যেন ব্যবস্থা নেওয়া হয়।

চিরেদজি-তে বাচ্চা মেয়েটির মৃত্যুর সবশেষ ঘটনা নিয়ে জিম্বাবোয়ে পার্ক অ্যান্ড ওয়াইল্ড লাইফ ম্যানেজমেন্ট অথরিটিজ (জিমপার্কস) অবশ্য এখনও কোনও মন্তব্য করেনি।

আমাদের পেজে আরও পড়ুন :

এখনও অটুট হুমায়ুন আহমেদের বইয়ের বিক্রি

ভূমিকম্প প্রবণ জায়গায় গভীর এক গর্ত খুঁড়ছে কেন ভারতীয়রা?

ভারতে এক আদালত যে কারণে ধর্ষিতা একটি বালিকার গর্ভপাতের বিপক্ষে রায় দিল

সম্পর্কিত বিষয়