সৌদি আরব: ভিক্ষুক যখন সুইপার

ছবির কপিরাইট US NAVY
Image caption সড়ক পরিষ্কার করতে পরিচ্ছন্নতাকর্মীই হতে হবে এমন কোন কথা নেই

বিশ্বের বেশ কয়েকজন নামকরা ধনী ব্যক্তিই সৌদি আরবের নাগরিক। এর বাইরে দেশটিতে রয়েছেন অনেক ধনাঢ্য।

আবার সেই দেশেই রাস্তায় দেখা যায় ভিক্ষুক।

আরব নিউজ পত্রিকার খবর অনুযায়ী জেদ্দার স্ট্রীট সুইপার বা সড়ক পরিচ্ছন্নতা কর্মী দিনে এগার ঘণ্টা কাজ করেন, তাও করতে হয় সপ্তাহে ছয় দিন।

অথচ এক মাসের আয় মাত্র ৪০০ রিয়াল বা ১০৭ ডলার।

আর সে কারণে তাদের অনেকেই নির্ভর করেন বিভিন্ন জনের কাছ থেকে পাওয়া বখশিশের ওপর।

অবশ্য সেটি একেবারেই কম নয়, মাসে সাতশ থেকে আড়াই হাজার রিয়াল পর্যন্ত।

আরও পড়ুনহারাম আল-শরিফ কেন এত স্পর্শকাতর একটি স্থান?

জরিমানা করা ৫ বছরের শিশুর জন্য চাকরির প্রস্তাব

আল-আকসা মসজিদ প্রাঙ্গনে ক্যামেরা বসালো ইসরায়েল

এতো কষ্ট করে এতো কম আয় করা ইউনিফর্মধারী পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের পাশেই দেখা মেলে ভিক্ষুকদের ।

বিশেষ করে রিয়াদ ও জেদ্দার সড়কে দেখা মেলে এসব ভিক্ষুকের এবং তাদের আয়ও খুব একটা কম নয়, কারণ দেশটিতে দান খয়রাতের একটি প্রথা চালু রয়েছে।

এ ভিক্ষুকদের অনেকে ভিক্ষাবৃত্তি বাদ দিয়ে আয়ের নতুন পথ খুঁজে পেয়েছে।

আর তা হলো তারা এখন পরিচ্ছন্নতা কর্মী হিসেবে কাজ করছেন এবং তার বিনিময়ে পাচ্ছেন অর্থ।

তবে কর্তৃপক্ষের চোখে তারা ঠিক বৈধ নয় আর এর মধ্যে অনেকেই অবৈধভাবে অবস্থান করা বিদেশী বলেই মনে করেন অনেকে।

এরা মূলত সড়কে সিগন্যালের কাছে থাকে এবং যানবাহন দাঁড়ালে সেগুলো পরিষ্কার করেআর বিনিময়ে বখশিস নেয়।

অনেকেই আবার সেটি করছেন পরিচ্ছন্নতাকর্মীর ইউনিফর্ম পড়েই, কর্তৃপক্ষের চোখে যা বৈধ নয়।

যদিও সত্যিকার পরিচ্ছন্নতা কর্মীরা চাইছেন অতিরিক্ত অর্থ বা টিপস তাদেরকেই দেয়া হোক।

মোহাম্মেদ নামক একজন পরিচ্ছন্নতা কর্মী আরব নিউজকে বলেন, "পয়সা দিতে হলে সেটি সত্যিকার পরিচ্ছন্নতা কর্মীদেরকেই দিন"।

সম্পর্কিত বিষয়