হাম্বানটোটা বন্দরের বিষয়ে চীনের সাথে চুক্তি করল শ্রীলংকা

ছবির কপিরাইট AFP
Image caption আন্তর্জাতিক শিপিং রুটের ব্যস্ত অংশে অবস্থান হাম্বানটোটা বন্দরের।

শ্রীলংকার দক্ষিণাঞ্চলীয় হাম্বানটোটায় ১১০ কোটি ডলারের বিনিময়ে গভীর সমুদ্রবন্দরের নিয়ন্ত্রণ এবং উন্নয়নের জন্য চীনের সাথে একটি চুক্তি করেছে দেশটির সরকার।

চীনা সামরিক বাহিনী বন্দরটি ব্যবহার করতে পারে এমন আশঙ্কা থেকে চুক্তিটি কয়েক মাস বিলম্বের পর স্বাক্ষরিত হলো।

সরকার নিশ্চিত করছে যে শুধুমাত্র বাণিজ্যিক কাজেই চীন বন্দরটি ব্যবহার করা হবে, মূলত: এশিয়া এবং ইউরোপের মধ্যে পণ্যবাহী জাহাজ চলবে এই বন্দর দিয়ে।

শ্রীলংকার সরকার বলছে এই চুক্তি থেকে পাওয়া অর্থ তাদের বৈদেশিক ঋণ পরিশোধে সাহায্য করবে।

চুক্তি অনুযায়ী, রাষ্ট্র মালিকানাধীন একটি চীনা কোম্পানি ৯৯ বছরের জন্য বন্দর এবং তার সংলগ্ন ১৫,০০০ একর জমি শিল্পাঞ্চল তৈরির জন্য ইজারা নেবে।

এই পরিকল্পনার ফলে হাজার-হাজার গ্রামবাসীকে উচ্ছেদ করতে হবে। তবে সরকার বলছে তাদের সবাইকেই নতুন জমি দেয়া হবে।

২০০৯ সালে শ্রীলংকায় ২৬ বছরব্যাপী গৃহযুদ্ধ শেষ হবার পর থেকে দেশটির অবকাঠামো খাতে চীন কোটি-কোটি ডলার বিনিয়োগ করেছে।

ভারত মহাসাগরের এই হাম্বানটোটা বন্দরটি চীনের বেল্ট এন্ড রোড পরিকল্পনায় একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় থাকবে। নতুন সিল্ক রোড নামে পরিচিতি পাওয়া এই প্রকল্পের মাধ্যমে চীন এবং ইউরোপের মধ্যকার বন্দর ও রাস্তাগুলোর মধ্যে সংযোগ দেয়া হবে।

প্রকল্পটির দিকে গভীরভাবে নজর রাখছে স্থানীয় বাণিজ্যিক প্রতিদ্বন্দ্বী জাপান এবং ভারত।