আইসল্যান্ডের নিজস্ব টয়লেট পেপারের ব্যবসা লাটে

Toilet roll ছবির কপিরাইট WIKIMEDIA/ELYA
Image caption টয়লেট পেপারের দাম নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়েছে আইসল্যান্ডে

আইসল্যান্ডে কেবল একটি মাত্র সংস্থাই টয়লেট পেপার বানায় - কিন্তু তারা বলছে মার্কিন প্রতিযোগীর দামের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে উঠতে না-পারায় তারা ব্যাপক সংখ্যায় কর্মী ছাঁটাই করতে বাধ্য হচ্ছে।

মার্কিন রিটেল জায়ান্ট কস্টকো এ বছরের গোড়ার দিকে আইসল্যান্ডের রাজধানী রিকিয়াভিকে তাদের প্রথম শপিং ওয়ারহাউস বা বিপণিটি চালু করে। এই স্টোরটি চালু করাকে কেন্দ্র করে সেখানে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনাও তৈরি হয়।

কিন্তু আইসল্যান্ডের নিজস্ব টয়লেট পেপার সংস্থা পেপকো এই উদ্দীপনায় শরিক হতে পারছে না - কারণ তারা বলছে কস্টকোর বিপণিটি চালু হওয়ার পর তাদের বিক্রি অন্তত তিরিশ শতাংশ কমে গেছে।

পেপকোর আলেক্সান্ডার কারাসন আশঙ্কা করছেন তার সংস্থার ভবিষ্যৎ খুব অন্ধকার - এবং তারা এর মধ্যেই বেশ কয়েকজন কর্মীকে ছাঁটাই করতে বাধ্য হয়েছেন।

এর প্রধান কারণ হল কস্টকো আইসল্যান্ডে যে দামে টয়লেট পেপার বেচছে সেই দামে তাদের পক্ষে বেচা সম্ভব হচ্ছে না।

স্থানীয় একটি সংবাদপত্রর কাছে মি কারাসন আরও দাবি করেছেন, পশ্চিমা বিশ্বের অন্যান্য দেশে কস্টকো যে দামে টয়লেট পেপার বেচে, আইসল্যান্ডে তার চেয়ে অনেক কম দামে তারা তা বেচছে।

"কিন্তু আমাদের পক্ষে সেটা সম্ভব নয়, কারণ টয়লেট পেপারের যেটা মূল কাঁচামাল - সেই কাগজটা আমাদের আন্তর্জাতিক বাজারের দামেই কিনতে হচ্ছে", বলছেন মি কারাসন।

কস্টকো একটি পাইকারি বা হোলসেল শপিং ক্লাবের ধাঁচে ব্যবসা করে - এবং ব্লুমবার্গের একটি রিপোর্ট অনুযায়ী আইসল্যান্ডের ৮০০০০ মানুষ, বা জনসংখ্যার এক-চতুর্থাংশ এর মধ্যেই তাদের গ্রাহক হয়েছেন।

কিন্তু আইসল্যান্ডের স্থানীয় কোম্পানিগুলো এই প্রতিযোগিতার মুখে যে বেশ সমস্যায় পড়েছে, টয়লেট পেপার শিল্পের হাল থেকেই তা বেশ বোঝা যাচ্ছে।

আমাদের পেজে আরও পড়ুন :

'যেথায় কাজ আছে, সেথাই চলি যাবো'

প্রাপ্তবয়স্ক জীবনের প্রথম ধাপ, বেলফাস্টের নারীদের কথা

'শোক দিবসে ছাত্রদের পড়া বোঝানো কি অপরাধ?'

গোপালগঞ্জে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যাচেষ্টা মামলায় ১০ জনের ফাঁসির আদেশ