আফগানিস্তানে 'জয়ের জন্য লড়াই' চালানোর ঘোষণা প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের

ট্রাম্প ছবির কপিরাইট Reuters

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, আফগানিস্তান থেকে মার্কিন বাহিনীর হঠাৎ করে সরে গেলে সেখানে যে শূণ্যতা তৈরি হবে সেটি পূরণ করবে সন্ত্রাসীরা।

তিনি বলেন, তাঁর প্রাথমিক ইচ্ছা ছিল আফগানিস্তান থেকে মার্কিন বাহিনী পুরোপুরি সরিয়ে নেয়া।

কিন্তু পরে তিনি ইরাক থেকে সেনা সরিয়ে নেয়ার মতো ভুল না করার সিদ্ধান্ত নেন।

তিনি বলেন আফগানিস্তানে মার্কিন সেনা থাকবে এবং 'জয়ের জন্য লড়াই' চালিয়ে যেতে হবে।

ফোর্ট মাইয়ার সেনা ঘাঁটি থেকে তিনি ওই ভাষণ দেন।

সেনা ঘাঁটিতে দেয়া এই বক্তব্যে খুব বড় ঘোষণা আসবে বলা হলেও, আফগানিস্তানে মার্কিন কৌশলের বিস্তারিত কী হবে সে বিষয়ে তিনি কিছু বলেননি।

তিনি বলেন, কিছু শর্তের ভিত্তিতে তারা কৌশল নির্ধারণ করবেন, তবে সেনা সরিয়ে নেয়ার কোনো সময়সীমা তিনি ঘোষণা করা হবে না।

যদিও মি: ট্রাম্প বলেছেন এটা কোনো 'ফাঁকা বুলি' নয়।

"আমেরিকা আফগান সরকারের সঙ্গে কাজ করবে, দুই দেশের এ নিয়ে প্রতিশ্রুতি আছে। যতদূর অগ্রগতি হয় ততদূর কাজ করবো আমরা" বলেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

তবে আফগানিস্তানে নতুন কত সেনা মোতায়েন করা হবে, সে সংখ্যা উল্লেখ করেননি প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। তিনি বলেছেন, পরিস্থিতি অনুযায়ী আমরা সিদ্ধান্ত নেয়া হবে তবে এখন থেকেই নতুন কৌশল শুরু হচ্ছে বলে জানান তিনি।

ধারণা করা হচ্ছে, নতুন করে আফগানিস্তানে আরো চার হাজার মার্কিন সেনা মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নেবেন তিনি। এর আগে মার্কিন শীর্ষ কমান্ডার জেনারেল জন নিকোলসন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের প্রতি অনুরোধ জানান, আফগানিস্তানে যেন চার হাজার মার্কিন সেনা পাঠানো হয়।

বর্তমানে সেখোনে আট হাজার চারশো মার্কিন সেনা অবস্থান করছে।

বিবিসি বাংলায় আরো পড়ুন:

বাংলাদেশের ক্রিকেটে সিলেকশন নিয়ে বিতর্ক কেন?

নায়ক রাজ্জাকের প্রতি শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন সর্বস্তরের মানুষ

যেভাবে তিনি 'নায়ক রাজ' হয়ে উঠলেন

২০৯০ সালের আগে এমন সূর্যগ্রহণ আর হবে না