ভারতের বিতর্কিত ধর্মগুরু রাম রহিমের ২০ বছরের সাজা

ছবির কপিরাইট AFP
Image caption গুরমিত রাম রহিম সিং এর জন্য তাঁর ভক্তরা পাগল

দুজন নারী শিষ্যকে ধর্ষণের দায়ে ভারতের বিতর্কিত ধর্মীয় গুরু গুরমিত রাম রহিম সিং-কে ২০ বছরের সাজা দিয়েছে দেশটির আদালত।

রাম রহিম সিং-এর সাজা নিয়ে প্রথমে কিছুটা ধোঁয়াশা তৈরি হলেও আদালতের কর্মকর্তারা পরে বলছেন, তাকে দুটো মামলার প্রত্যেকটিতে ১০ বছর করে কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

একটির সাজার মেয়াদ শেষ হলে আরেকটির সাজা শুরু হবে। সেজন্য রাম রহিম সিংকে ২০ বছর সাজা খাটতে হবে বলে আইন কর্মকর্তারা বলছেন।

এর আগে হরিয়ানার পাঁচকুলাতে শুক্রবার সিবিআই আদালত রাম রহিমকে ধর্ষণে দোষী সাব্যস্ত করলে তার হাজার হাজার ভক্ত হরিয়ানা, পাঞ্জাব ও দিল্লির বিভিন্ন জায়গায় তুমুল বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন, ট্রেন-বাসও জ্বালিয়ে দেওয়া হয়।

ধর্ষণের মামলায় দোষী সাব্যস্ত বিতর্কিত ধর্মগুরু বাবা গুরমিত রাম রহিম সিংয়ের সাজা ঘোষণার আগে হরিয়ানার রোহটাক জুড়ে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার আয়োজন করা হয়েছে। সাজা ঘোষণার জন্য সোমবার জেলের ভেতরেই আদালত বসেছে।

শুক্রবারের সহিংসতায় অন্তত ৩৮জন নিহত ও আরও বহু লোক জখম হওয়ার পর অভিযোগ ওঠে যে হরিয়ানা প্রশাসন পরিস্থিতি সামলাতে চূড়ান্ত ব্যর্থ হয়েছে।

সোমবার যাতে সেদিনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি না-হয়, সেজন্য সর্বোচ্চ সতর্কতা নেয়া হয়েছিল।

৫০ বছর বয়সী গুরমিত রাম রহিম সিংকে এখন বন্দি রাখা হয়েছে রোহটাকের সানোরিয়া জেলে, যেটি রোহটাক শহর থেকে দশ কিলোমিটার দূরে।

শহর থেকে যে রাস্তাটি জেল অভিমুখে যাচ্ছে, সেটি আর কারাগার চত্বর ঘিরে রেখেছে সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ এবং হরিয়ানা পুলিশের সদস্যরা।

সম্পর্কিত বিষয়