মোঙ্গল শাসক চেঙ্গিস খানের ছবি ইচ্ছাকৃতভাবে পদদলনের দায়ে চীনা তরুণের জেল

চেঙ্গিস খান মঙ্গোলিয়া শাসন করেন ১২০০ শতকে ছবির কপিরাইট Hulton Archive / Getty Images
Image caption চেঙ্গিস খান মোঙ্গল জাতিগোষ্ঠির মানুষের কাছে অত্যন্ত শ্রদ্ধাভাজন ব্যক্তি

মঙ্গোলিয়ার সাবেক শাসক চেঙ্গিস খানের ছবি পা দিয়ে ইচ্ছাকৃতভাবে মাড়ানোর দায়ে এক চীনা ব্যক্তিকে এক বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। জাতিগত বিদ্বেষ ছড়ানোর জন্য তাকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে।

চীনের অভ্যন্তরে মঙ্গোলিয়া অঞ্চলের এক আদালতে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছিল লুয়ো নামের এক ব্যক্তি চেঙ্গিস খানের ছবি ইচ্ছাকৃতভাবে পদদলিত করার ছবি ক্যামেরায় তোলেন মে মাসে।

১৯ বছরের ওই তরুণ এরপর ওই ভিডিও ক্লিপ অনলাইনে পোস্ট করেন। খবরে বলা হয় ওই ভিডিও জনমনে একটা অসন্তোষ তৈরি করে।

মোঙ্গল জাতিগোষ্ঠির মধ্যে চেঙ্গিস খানএকজন সম্মানিত ব্যক্তি।

বিবিসি বাংলায় আরও পড়ুন:

রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম শিনহুয়া বলেছে মঙ্গোলিয়ার ভেতর স্বায়ত্ত শাসিত এলাকায় অরদোস শহর যেখানে এই ঘটনা ঘটেছে, সেখানকার আদালত জাতিগত বিদ্বেষ ছড়ানো এবং জাতিবৈষম্য সৃষ্টির দায়ে লুয়োকে দোষী সাব্যস্ত করেছেন।

স্থানীয় একটি নিরাপত্তা ব্যুরোকে উদ্ধৃত করে দ্য পেপার সংবাদমাধ্যম জানাচ্ছে লুয়ো চেঙ্গিস খানের ছবিতে ''পদাঘাত ও অবমাননার'' ভিডিও, জনপ্রিয় একটি ভিডিও প্ল্যাটফর্ম কুয়াইশুতে তুলে দেন এবং ইউচ্যাট মেসেজিং অ্যাপে বন্ধুবান্ধব ও বিভিন্ন গ্রুপের মধ্যে ব্যাপকভাবে ভিডিওটি ছড়িয়ে দেন।

এর কড়া প্রতিক্রিয়া হয়েছে এবং পুলিশের কাছে বেশ কিছু রিপোর্ট আসে। কর্তৃপক্ষ এরপর ভিডিওটি সরিয়ে নেয়।

জনমনে আঘাত দেবার জন্য লুয়ো তার বিচার প্রক্রিয়ার সময় ক্ষমা চেয়েছে।

চেঙ্গিস খান নয় বছর বয়মে অনাথ হন। এবং ১২০৬ সালে মঙ্গোলিয়ার অবিসম্বাদিত নেতা হন। ১৩শ শতাব্দীতে তিনি উত্তপূর্ব এশিয়া জুড়ে বিশাল সাম্রাাজ্য গড়ে তোলেন।