প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সারা বিশ্বকে তাদের পদানত করতে চায়: উত্তর কোরিয়া

উত্তর কোরিয়ার পরমাণু কর্মসূচির কারণে যুক্তরাষ্ট্রের সাথে দেশটির উত্তেজনা এখন তুঙ্গে ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption উত্তর কোরিয়ার পরমাণু কর্মসূচির কারণে যুক্তরাষ্ট্রের সাথে দেশটির উত্তেজনা এখন তুঙ্গে

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প পুরো বিশ্বকে তাদের পদানত করতে চায় বলে অভিযোগ করেছে উত্তর কোরিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

মন্ত্রণালয়ের একজন মুখপাত্র প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের প্রশাসন যে নতুন জাতীয় নিরাপত্তা কৌশলের রূপরেখা তৈরি করেছে, সেটি একটি অপকর্মের দলিল বলে বর্ণনা করেছেন।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প গত সোমবার বলেছিলেন, উত্তর কোরিয়ার অস্ত্র কর্মসূচি যে হুমকি তৈরি করেছে, যুক্তরাষ্ট্রকে তার মোকাবেলা করতে হবে।

উত্তর কোরিয়া বলছে, যুক্তরাষ্ট্র চায় তাদের বিরুদ্ধে সর্বশক্তি প্রয়োগ করতে।

উত্তর কোরিয়ার উপর কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপের বিষয়ে জাতিসংঘে ভোটাভুটির আগে এই মন্তব্য করলো উত্তর কোরিয়া।

'তুই চলে যা, পেছনে তাকাইলে মাইরা ফালামু'

বাংলাদেশের নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক মোবাশ্বার ফিরেছেন: কেন নিখোঁজ ছিলেন তিনি?

পিয়ংইয়ং-এ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এই মুখপাত্র বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের এই জাতীয় নিরাপত্তা কৌশল আসলে 'কিছুই না। তবে এটি আগ্রাসনের একটি ঘোষণা।"

যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে তিনি বলেন, ওয়াশিংটন চাইছে উত্তর কোরিয়ার শ্বাস রোধ করে দেশটিকে দমন করতে। এবং আধিপত্য বিস্তারের জন্যে তারা কোরীয় উপদ্বীপকে তাদের একটি আউটপোস্ট বানাতে চায়।

সোমবারে ঘোষিত ওই কৌশলে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প উত্তর কোরিয়ার অব্যাহত পরমাণু কর্মসূচির কড়া সমালোচনা করেন।

গত মাসে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এও বলেন যে উত্তর কোরিয়া রাষ্ট্রীয়ভাবে সন্ত্রাসের পৃষ্ঠপোষকতা করছে।

পরমাণু কর্মসূচি এবং ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার জেরে উত্তর কোরিয়ার সাথে যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে উত্তেজনা গত কয়েক মাস ধরেই তুঙ্গে।

জড়িয়ে ধরায় স্কুল থেকে ছাত্রছাত্রী বহিষ্কার ভারতে

যুক্তরাষ্ট্র প্রশাসন এতোদিন ধরে কূটনৈতিক উপায়ে এই উত্তেজনা প্রশমনের কথা বলে আসছিলো। আর এখন ওয়াশিংটন চায় উত্তর কোরিয়ার উপর আরো কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে।

বলা হচ্ছে, দেশটির তেল সরবরাহের উপর ৯০ শতাংশ নিষেধাজ্ঞা আরোপের কথা।

গত সেপ্টেম্বর মাসে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প কিম জং আনের সম্পদ জব্দ করার কথাও বলেছিলেন।