মাঠে ময়দানে
আপনার ডিভাইস মিডিয়া প্লেব্যাক সমর্থন করে না

আগামীতে কি ফুটবল দেখা যাবে ফেসবুক বা আমাজন প্রাইমে?

ইংরিশ প্রিমিয়ার লিগ ফুটবলের টিভি প্রচারস্বত্ব কেনার লড়াইয়ের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে । শোনা যাচ্ছে, এ লড়াইয়ে নামতে যাচ্ছে ফেসবুক আর আমাজন প্রাইমও।

তারা যদি জিতে যায় - তাহলে খেলার সরাসরি সম্প্রচার আর টিভিতে দেখা যাবে না, দেখতে হবে মোবাইলে বা কম্পিউটারে লাইভ স্ট্রিমিং হিসেবে।

এতকাল যেভাবে আমরা টিভিতে খেলা দেখেছি - সেই অভ্যাস তাহলে বদলে যাবে।

ফেসবুক, টুইটারকে আমরা দেখতে অভ্যস্ত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হিসেবে। কিন্তু এর ফলে হয়তো তা বদলে যেকে পারে। আগামী দিনগুলোয় তাদের দেখা যেতে পারে ইলিংশ প্রিমিয়ার লিগ ফুটবলের প্রচারস্বত্বের মালিক হিসেবে।

সম্প্রতি ২০১৯ থেকে ২০২২ পর্যন্ত মেয়াদের জন্য ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের টিভি প্রচারস্বত্বের টেন্ডার ছাড়া হয়েছে।

ছবির কপিরাইট LOIC VENANCE
Image caption ফেসবুক চাইছে ফুটবলের প্রচার স্বত্বের ব্যবসায় ঢুকতে

ইংলিশ ফুটবলের নাড়ি নক্ষত্রের খোঁজ রাখেন এমন লোক যারা - যেমন স্যার মার্টিন সোরেল, বা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ক্লাবের ফুটবল শীর্ষ কর্মকর্তা এড উডওয়ার্ড - তারা বলছেন, এই বিডিং যুদ্ধে এবার ফেসবুক এবং আমাজন প্রাইমকে দেখা যাবে বলে তাদের ধারণা।

মনে রাখতে হবে যে বেশ কিছুদিন ধরেই এসব কোম্পানিগুলো খেলা সম্প্রচারের জগতে ঢোকার চেষ্টা করছে।

ফেসবুক এবছরই ভারতের টি২০ ক্রিকেটর টুর্নামেন্ট আইপিএলের প্রচার স্বত্বও কিনতে চেয়েছিল। কিন্তু বিডিংএর লড়াইয়ে তারা হেরে যায়। অন্যদিকে আমাজন প্রাইম ইতিমধ্যেই সপ্তাহে একদিন আমেরিকান ফুটবল দেখানোর স্বত্ব কিনে নিয়েছে।

ফলে এবার তারা যে অতি-লাভজনক ইউরোপিয়ান ফুটবলের প্রচারস্বত্ব কিনতে আগ্রহী হবে তাতে সন্দেহ কি?

কিন্তু এদের আবির্ভাব কি ভাবে বদলে দেবে খেলার জগতকে?

ছবির কপিরাইট Brian Ach
Image caption আমাজন প্রাইম ইতিমধ্যেই এনএফএলের একদিনের সম্প্রচার স্বত্ব কিনেছে

মাদ্রিদ থেকে ফুটবল বিশ্লেষক ফিল মিনশুল বলছিলেন, এটা একটা বড় পরিবর্তন যা আমরা যেভাবে এখন ফুটবল বা অন্য যে কোন খেলা দেখি তা বদলে দেবে।

"এখনকার মতো লোকে আর টিভিতে খেলা দেখবে না। দেখবে মোবাইল ফোনে, ট্যাবলেট বা ল্যাপটপ বা কম্পিউটারে। খেলা দেখানো হবে সরাসরি সম্প্রচার নয়, সরাসরি স্ট্রিমিং এর মাধ্যমে। এটা ইতিমধ্যেই পরীক্ষা করে দেখা হয়েছে আমেরিকায়। আমাজন প্রাইম এবছরই আমেরিকান ফুটবল লিগ বা এনএফএল দেখানোর জন্য একটা চুক্তি করেছে।

"অবশ্য এই স্ট্রিমিং দেখাতে গিয়ে বহু রকম কারিগরি সমস্যা হয়েছে, এ নিয়ে দর্শকরা অভিযোগ করেছেন যে শব্দ শোনা যায়নি, কোথাও বা বাফারিং হচ্ছিল, বা ভিডিও কেটে যাচ্ছিল। সে কারণে আমাজন প্রাইম, নেটিফ্লিক্স, ফেসবুক - এসব বড় বিডারদেরকে এ ধরণের স্ট্রিমিংএর উপযুক্ত প্রযুক্তি কেমন হতে হবে - তা নিয়ে ভাবতে হবে।"

"কিন্তু মনে হচ্ছে তারা দমে যাবে না - কারণ প্রিমিয়ার লিগ পৃথিবীতে সবচেয়ে বেশি দেখা হয়। এটা প্রায় ৮০০ কোটি ডলারের ব্যবসা। মনে করা হচ্ছে আগামী তিন বছরে এ ব্যবসা আরো বাড়বে। এখন এ ব্যবসার মধ্যে যদি ফেসবুক বা আমাজন প্রাইমের মতো নতুন প্রতিষ্ঠান ঢুকতে চায় তাহলে সম্পূর্ণ নতুন এক পরিস্থিতির সৃষ্টি হবে। ইউরোপের অন্য লিগগুলোর প্রতিও হয়তো এরা আগ্রহী হয়ে উঠবে।"

ধরা যাক, ফেসবুক বা আমাজন প্রাইম ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের টিভি স্বত্ব কিনে নিল। তারা কি এসব খেলা আর টিভিতে দেখা যাবে না? সব খেলাই কি শুধু স্ট্রিমে দেখা যাবে?

ছবির কপিরাইট Alex Broadway
Image caption ফুটবলের সরাসরি সম্প্রচার স্বত্ব শত শত কোটি ডলারের ব্যবসা

ফিল মিনশুল বলছিলেন, "হ্যাঁ, এটাই তাদের পরিকল্পনার লক্ষ্য। আমরা এখন যেভাবে টিভিতে লাইভ খেলা দেখি - তা একেবারেই বদলে দেবে এই আমাজন প্রাইম বা ফেসবুক। তখন লাইভ খেলা আর টিভিতে দেখা যাবে না। দেখতে হবে কম্পিউটারে বা মোবাইল ফোনে।"

"তবে এ পরিবর্তন যে এক্ষুণি হতে যাচ্ছে তা হয়তো নয়। কারণ প্রিমিয়ার লিগের টিভি স্বত্ব এখনও স্যাটেলাইট এবং কেবল ব্রডকাস্টারদের হাতে আছে - তা আরো তিন বছর থাকবে। প্রিমিয়ার লিগ কর্তৃপক্ষও হয়তো এর স্বত্বের সবটাই ফেসবুক, বা আমাজন প্রাইমের হাতে তুলে দেবে না।

"তা ছাড়া বর্তমান আইনে কোন কোম্পানিই ১৩০টির বেশি প্রিমিয়ার লিগ ম্যাচ দেখাতে পারে না। তাই আমাজন বা ফেসবুক হয়তো খুব বেশি হলে টিভি স্বত্বের একটা অংশ কিনতে পারবে। তা ছাড়া ব্রিটেনে বা ইউরোপে ব্রডব্যান্ড স্পিড সর্বত্র সমান ভালো নয়। তাই সবাই যে ভালোভাবে স্ট্রিমিং দেখতে পারবে - তাও হবে না।"

ছবির কপিরাইট DIBYANGSHU SARKAR
Image caption ফেসবুক এর আগে আইপিএলের স্বত্ব কিনতে চেয়েছিল

"এশিয়ায় জাপান, বা কোরিয়ায় খুবই দ্রুতগতির ব্রডব্যান্ড আছে। কিন্তু এশিয়ার অন্যত্র বা আফ্রিকায় ব্রডব্যান্ড অতটা দ্রুত নয়। সেখানে স্ট্রিমিং দেখতে সমস্যা হবে। কিন্তু দুনিয়া বদলাচ্ছে। হয়তো কিছু দিন পর দ্রুতগতির ব্রডব্যান্ড আরো সুলভ হয়ে যাবে।"

কিন্তু ফেসবুকে যদি আন্তর্জাতিক পেশাদার ক্লাব ফুটবল দেখানো শুরু হয় - তাহলে কি ফেসবুক আর এখনকার মতো বিনামূল্যে পাওয়া যাবে? তখন কি আমাজন প্রাইমের মতো 'ফেসবুক প্রাইম' চালু হবে না?

ফিল মিনশুল বলছিলেন, "আমার মনে হয় হয়তো অবস্থাটা সেদিকেই যাচ্ছে। কারণ ফেসবুক বা টুইটার এখন শুধু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম নেই - তারা এখন বিভিন্ন পণ্য পরিবেশন করার একটা পোর্টালে পরিণত হয়েছে। আর কিছুদিন পর ফেসবুকে আমরা শুধু কথাই বলবো না, সেখানে হয়তো লাইভ খেলা, বা সিনেমা, টেলিভিশন সিরিজ ইত্যাদি দেখা যাবে। "

"তবে প্রচলিত অর্থে টিভিতে খেলা দেখা এখনই শেষ হতে বসেছে এটা আমি মনে করি না। আমার ধারণা এটা আরো অন্তত দশ বছর থাকবে।"

Image caption ফুটবল থেকে টিভির আয় হুহু করে বাড়ছে

কেন এই প্রতিষ্ঠানগুলো খেলার টিভি স্বত্বের বাজারে ঢুকতে চাইছে? জবাব সহজ । এর বাণিজ্যিক সম্ভাবনাটাই আসল।

"প্রিমিয়ার লিগের টিভি স্বত্ব বিক্রি হয়েছে প্রায় ৬০০ কোটি ডলারে। আমাজন আর ফেসবুক এখন স্পেনের লা লিগার প্রচারস্বত্ব কিনতেও আগ্রহী বলে আমরা জানতে পারছি। শুধু ফুটবলে নয়, ফেসবুক এবার আইপিএল টি২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের প্রচারস্বত্বও কিনতে চেয়েছিল - কিন্তু তারা বিডিংএর প্রতিযোগিতায় হেরে যায়।

"এছাড়াও রাগবি, বাস্কেটবল ইত্যদি অন্যান্য জনপ্রিয় খেলার ব্যাপারেও তারা আগ্রহী। আর তা হবেই বা না কেন? এসব কোম্পানি অত্যন্ত ধনী, তারা মাল্টি-বিলিয়ন ডলারের ব্যবসা করছে।"

"তারা মনে করছে, খেলার প্রচারস্বত্বের বাজারে ঢোকাটা তাদের আগামি যুগের ব্যবসার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ" - বলছিলেন ফিল মিনশুল।

এবারের মাঠে ময়দানে পরিবেশন করেছেন পুলক গুপ্ত।