বিক্ষোভের মুখে ঢাকার টঙ্গীতে তাবলীগ জামাতের বিশ্ব ইজতেমায় যোগ দিচ্ছেন না মাওলানা সাদ

তাবলীগ জামাতের বিক্ষোভ ছবির কপিরাইট বিবিসি
Image caption তাবলীগ জামাতের কেন্দ্রীয় নেতা মাওলানা মোহাম্মদ সাদ কান্দালভির আগমনের বিরোধিতা করে আজ বৃহস্পতিবার রাজধানী ঢাকার কাকরাইল মসজিদের পাশে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে সংগঠনটির একাংশের কর্মীরা।

শেষ পর্যন্ত আগামীকাল শুরু হওয়া বিশ্ব ইজতেমায় যোগ দেবেন না দিল্লি থেকে আসা তাবলীগ জামাতের কেন্দ্রীয় নেতা মাওলানা মোহাম্মদ সাদ কান্দালভি।

তাঁর ঢাকায় আগমনের প্রতিবাদে দ্বিতীয় দিনের মত সংগঠনটির একাংশের বিক্ষোভের মুখে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে সরকারি সূত্রগুলো থেকে জানা গিয়েছে।

তাঁর যোগ না দেওয়ার ব্যাপারটি সংশ্লিষ্টমহল আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে অবহিত করেছে বলে বিবিসি বাংলাকে জানিয়েছেন র‍্যাবের মুখপাত্র মুফতি মাহমুদ খান।

বিশ্ব ইজতেমায় যোগ দিতে আসা ভারতীয় উপমহাদেশের সুন্নি মুসলিমদের বৃহত্তম সংগঠনটির কেন্দ্রীয় শুরা সদস্য মাওলানা সাদ এখন কড়া পুলিশী পাহাড়ায় কাকরাইল মসজিদে অবস্থান করছেন।

তার আগমনের বিরোধিতা করে আজ সকালে রাজধানী ঢাকার কাকরাইল মসজিদে বিক্ষোভ শুরু করেন তাবলীগ জামাতের একাংশের বেশ কয়েকশো অনুসারী।

ছবির কপিরাইট বিবিসি
Image caption তাবলীগ জামাতের কেন্দ্রীয় নেতা মাওলানা মোহাম্মদ সাদ কান্দালভির আগমনের বিরোধিতা করে আজ বৃহস্পতিবার রাজধানী ঢাকার কাকরাইল মসজিদের পাশে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে সংগঠনটির একাংশের কর্মীরা।

পরে পুলিশের বাধায় প্রথমে প্রেসক্লাবের সামনে এবং এখন বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদের সামনে অবস্থান নিয়েছেন তারা।

সেখানে অনাকাঙ্খিত কোন ঘটনা এড়াতে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ কমিশনার আসাদুজ্জামান মিয়া।

বিবিসি বাংলাকে তিনি বলেন মাওলানা সাদকে নিয়ে চলমান বিক্ষোভের মুখে তাকেও এখনো কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে রাখা হয়েছে।

যেহেতু মাওলানা সাদ বাংলাদেশে এসেছেন, তার নিরাপত্তার দ্বায়িত্ব পুলিশের, বলছিলেন মি: আসাদুজ্জামান।

তিনি আগামীকাল টঙ্গীতে শুরু হতে যাওয়া বিশ্ব ইজতেমায় যোগ দিবেন কি-না তা নিয়ে তাবলীগ জামাতের দুই অংশের সাথে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় আলোচনা হয়েছে, পুলিশ কমিশনার বলেছেন।

আরো পড়ুন:

মাওলানা সাদকে ঘিরে তাবলীগের দ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে

রোহিঙ্গা হত্যার কথা স্বীকার মিয়ানমার সেনাবাহিনীর

১/১১: পর্দার আড়ালে কী ঘটেছিল?

বিশ্ব ইজতেমার আয়োজন একেবারে শেষ পর্যায়ে রয়েছে।

গতকাল দিল্লি থেকে মাওলানা সাদ শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছানোর পর তাবলীগ জামাতের একাংশের কর্মীরা বিমানবন্দর এলাকায় বিক্ষোভ করেছেন।

বিক্ষোভের মুখে তাঁকে বিমানবন্দরের ভেতরেই কয়েক ঘণ্টা ধরে অবস্থান করতে হয়।

এক পর্যায়ে বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে পুলিশের পাহারায় মাওলানা সাদকে বিমানবন্দর থেকে কাকরাইল মসজিদে নিয়ে যাওয়া হয় এবং সেখানেই তাঁকে রাখা হয়েছে।