ঢাকার নাখালপাড়ায় জঙ্গি আস্তানায় নিহত ৩

র‍্যাব ছবির কপিরাইট ফোকাস বাংলা
Image caption র‍্যাবের অভিযানে সন্দেহভাজন তিন জঙ্গি নিহত হয়েছে

বাংলাদেশের ঢাকার নাখালপাড়ায় সন্দেহভাজন জঙ্গি আস্তানায় র‍্যাবের অভিযানে তিনজন নিহত হয়েছে।

র‍্যাবের কর্মকর্তারা বলছেন, ওই আস্তানা থেকে ইম্প্রোভাইজম এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস, বিস্ফোরক জেল ও পিস্তল পাওয়া গেছে।

পশ্চিম নাখালপাড়ার পুরোনো এমপি হোস্টেলের পেছনে রুবি ভিলা নামের একটি ছয়তলা বাড়িতে রাত ২টা থেকে অভিযান শুরু করে র‍্যাবের সদস্যরা। শুক্রবার ভোরে জঙ্গিদের সঙ্গে তাদের গোলাগুলি হয়।

র‍্যাবের মহাপরিচালক বেনজির আহমেদ সাংবাদিকদের জানান, অভিযানের পর তারা সেখানে তিনজনের মৃতদেহ দেখতে পেয়েছেন। তারা গ্যাসের চুলার উপর গ্রেনেড রেখেও বিস্ফোরণের চেষ্টা করেছিল।

তবে এখনো নিহতদের পরিচয় সম্পর্কে কিছু জানা যায়নি। তবে তাদের বয়স ২০-৩০ বছরের মধ্যে বলে র‍্যাব জানিয়েছে।

র‍্যাবের গণমাধ্যম শাখার পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান ঘটনাস্থলে সাংবাদিকদের জানান, আমাদের কাছে গোয়েন্দা তথ্য ছিল যে, এই জায়গায় জঙ্গিরা অবস্থান করছে এবং তারা নাশকতার পরিকল্পনা করছে। এর ভিত্তিতে ভবনের পঞ্চম তলায় অভিযান চালানো হয়। তখন জঙ্গিরা র‍্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি করে আর গ্রেনেড নিক্ষেপ করা হলে র‍্যাবও পাল্টা গুলি করে।

তিনি জানান, রাত ২টার দিকে তারা অভিযান শুরু করেন। কেউ ফটক না খোলায় সেটি ভেঙ্গে তারা ভেতরে প্রবেশ করেন। নিরাপত্তার স্বার্থে আগেই বাড়ির কয়েকটি ফ্লোরের বাসিন্দাদের সরিয়ে নেয়া হয়।

তিনি বলেন, ''এখানে কেয়ারটেকারসহ আরো কয়েকজন আছে, যাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এসব জিজ্ঞাসাবাদ থেকে আমরা আরো তথ্য পাবো বলে আশা করছি। বিশেষ করে যারা মারা গেছে, তাদের পরিচয় হয়তো জানা যাবে।''

বাড়িটি র‍্যাবের সদস্যরা ঘিরে রেখেছে। সেখানে এখন র‍্যাবের বোম নিষ্ক্রিয়কারী দল কাজ শুরু করেছে।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, এই বাড়িটির কয়েকটি তলায় মেস করে অনেকে বসবাস করে।

বিবিসি বাংলায় আরো পড়তে পারেন:

জঙ্গি মতাদর্শ ঠেকাতে বাংলাদেশ কতটুকু চেষ্টা করছে?

বাংলাদেশে জঙ্গি-বিরোধী অভিযান নিয়ে প্রশ্ন কেন?

১/১১: পর্দার আড়ালে কী ঘটেছিল?

ঢাকায় মরদেহ কবর দেয়ার জায়গার এত অভাব কেন?