'সুষ্ঠু-নিরপেক্ষ নির্বাচন করবে' এমন সরকার চায় বিএনপি

ছবির কপিরাইট AFP
Image caption বাংলাদেশের সংসদ ভবন

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এক টিভি ভাষণে 'নির্বাচনকালীন সরকারের' কথা উল্লেখ করার পর ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেতা তোফায়েল আহমেদ ব্যাখ্যা দিয়েছেন যে বর্তমান সরকারই হবে নির্বাচনকালীন সরকার, এবং অন্য কোন দলের এর অংশ হবার সুযোগ থাকবে না।

এ অবস্থানের প্রেক্ষাপটে বিএনপি কি সিদ্ধান্ত নেবে?

দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এর সরাসরি উত্তর এড়িয়ে জানিয়েছেন, বিএনপি নির্বাচনকালীন এমন একটি সরকার চায় যারা নিরপেক্ষ এবং সুষ্ঠু নির্বাচনের নিশ্চয়তা দেবেন।

"আমাদের সংবাদ সম্মেলনে আমরা স্পষ্ট করে বলে দিয়েছি, আমরা এখনো আশা করি সরকার তাদের অবস্থান পরিবর্তন করবেন। এবং তারা সকল রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে আলাপ করে, সংলাপ করে, সকলের কাছে গ্রহলযোগ্য একটা পথ বের করবেন।"

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, এবছরের শেষের দিকেই নির্বাচন হবে। তার সরকারের অধীনেই যদি নির্বাচন হয় তাহলে কি পথ তাদের কাছে গ্রহণযোগ্য হবে?

জবাবে িএনপি মহাসচিব বলেন, "আমরা ওপেন রাখছি, উই আর নট রিজিড। আমরা বলছি, আলোচনা করেন, আসেন। লেট আস ট্রাই টু ফাইন্ড আউট এ ওয়ে।"

"আর নির্বাচনে যাব কি যাব না, সে ব্যপারে তো আমরা এখনো পরিষ্কার করে কোন সিদ্ধান্ত নেইনি। আমরা বলেছি আমরা নির্বাচনে যেতে চাই। উই ওয়ান্ট টু গো টু দ্য ইলেকশন।"

"কিন্তু এই নির্বাচনের জন্য তো একটা লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি করতে হবে। আমাকে সমান সুযোগ দিতে হবে। নির্বাচনের উপযুক্ত পরিবেশ তৈরি করতে হবে।"

বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট এর আগে ২০১৪ সালের ৫ই জানুয়ারীর জাতীয় নির্বাচন বর্জন করেছিল তাদের দাবি অনুযায়ী একটি নির্বাচনকালীন তত্ত্বাবধায়ক সরকার গঠিত না হওয়ায়।

জোটের আরেকটি বড় রাজনৈতিক দল জামায়াতে ইসলামীর নিবন্ধন বাতিল হয়ে যাওয়ায় তারা নির্বাচনে অংশ নিতে পারবে না।

সম্পর্কিত বিষয়