লন্ডন অলিম্পিকসের নিরাপত্তা নিয়ে কেলেংকারি

ঠিকাদারের ভুলে আসন্ন লন্ডন অলিম্পিকসের নিরাপত্তা নিয়ে আয়োজকরা বড় ধরণের কেলেঙ্কারিতে পড়েছেন।

অলিম্পিক ভেন্যুগুলোর নিরাপত্তার ঠিকাদারি পেয়েছিল বেসরকারি খাতের আন্তর্জাতিক নিরাপত্তা সংস্থা জিফোরএস।

কিন্তু অলিম্পিকস শুরুর সপ্তাহ দুয়েক আগে হঠাৎ করে তারা জানায় শর্ত মত নিরাপত্তা কর্মী তারা দিতে পারবে না।

এ কারণে ব্রিটিশ সরকারকে তড়িঘড়ি করে বিকল্প ব্যবস্থা হিসেবে সাদে তিন হাজার সৈন্য মোতায়েন করতে হয়েছে।

লন্ডনের বাইরে বিভিন্ন ভেন্যুর নিরাপত্তার জন্য স্থানীয় পুলিশ সদস্যদেরও ডাকতে হচ্ছে।

এমপিদের জেরা

এই পরিস্থিতিতে জিফোরএসের প্রধান নির্বাহী নিক বাকলস্‌কে আজ (মঙ্গলবার) জেরা করেছেন ব্রিটিশ সংসদের স্বরাষ্ট্র বিষয়ক স্থায়ী কমিটির সদস্যরা।

এমপিদের বাক্যবাণের মুখে, মি: বাকলস্ এই ব্যর্থতার জন্য দু:খ প্রকাশ করেছেন।

অতিরিক্ত পুলিশ তলব করার জন্য যে খরচ সরকারের হবে, তার জন্য ক্ষতিপূরণ দেয়ার প্রতিশ্রুতিও দিয়েছেন তিনি।

কেন তিনি এখনো পদত্যাগ করেননি--একজন এমপির এই প্রশ্নে জিফোরএসের প্রধান নির্বাহী বলেন, "যে ভুল হয়েছে তা শুধরানোর জন্য আমিই সবচেয়ে উপযুক্ত ব্যক্তি"।

শেষ মুহূর্তে স্বীকারোক্তি

অলিম্পিকস শুরুর মাত্র সপ্তাহ তিনেক আগে জিফোরএস আয়োজকদের জানায় প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা কর্মী নিয়োগ করতে ব্যর্থ হয়েছে তারা।

১১ই জুলাই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তেরেসা মে-কে তা জানানো হয়। তারপরই বাড়তি সেনা সদস্য ও পুলিশ তলব করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

জিফোরএসের সাথে অলিম্পিকসের সময় দশ হাজার নিরাপত্তা কর্মী জোগান দেওয়ার বিনিময়ে ২৮ কোটি পাউন্ডের চুক্তি হয়েছিল।

সংস্থাটি এখন বলছে তারা বড়জোর সাত হাজার নিরাপত্তা কর্মী নিশ্চিত করতে পারবে।

জানা গেছে, এই ব্যর্থতার জন্য জিফোরএসকে চুক্তির চেয়ে পাঁচ কোটি পাউন্ড কম দেওয়া হতে পারে।