BBC navigation

নুহাশ পল্লীতেই হুমায়ূনের শেষ শয্যা

সর্বশেষ আপডেট মঙ্গলবার, 24 জুলাই, 2012 22:04 GMT 04:04 বাংলাদেশ সময়
humayun ahmed

হুমায়ূন আহমেদ ছিলেন সমকালীণ বাংলা সাহিত্যের জনপ্রিয় একজন কথাসাহিত্যিক।

বাংলাদেশের জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদকে ঢাকার অদূরে গাজীপুরে তার নিজের গড়া নুহাশ পল্লী নামে একটি বাগান বাড়ীতে দাফন করা হবে বলে সিদ্ধান্ত হয়েছে।

তাকে দাফন করা নিয়ে পরিবারের সদস্যদের মধ্যে মতভেদ দেখা দেয়ার পর এ নিয়ে গভীর রাত পর্যন্ত বৈঠক হয় এবং সরকারের একজন মন্ত্রীর হস্তক্ষেপে বিষয়টি সুরাহা হয়।

মূলত: সোমবার হুমায়ুন আহমেদের মরদেহ ঢাকায় পৌঁছানোর পর তাকে কোথায় দাফন করা হবে তা নিয়ে তার প্রথম পক্ষের সন্তান এবং ভাইদের সাথে মতভেদ তৈরি হয় বর্তমান স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওনের সঙ্গে।

লেখকের ভাই এবং প্রথম পক্ষের সন্তানেরা আগেই জানিয়েছিলেন তারা চান হুমায়ূন আহমেদকে ঢাকার বনানী কিংবা মিরপুর শহীদ বুদ্ধিজীবী গোরস্থানে দাফন করা হোক।

কিন্তু লেখকের মৃত্যুর সময় তার পাশে থাকা বর্তমান স্ত্রী শাওন দাবী করেন, লেখকের শেষ ইচ্ছা ছিলো তাকে যেন নুহাশ পল্লীতেই দাফন করা হয়।

নাসিরউদ্দীন ইউসুফ বাচ্চু, সভাপতি, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট

"সন্তানেরা বললো যে আমরা আমাদের বাবাকে এভাবে আর কষ্ট দিতে চাইনা। হিমঘরে রাখতে চাইনা।"

সোমবারই লেখকের দাফন হওয়ার কথা থাকলেও এ মতভেদের কারণে তা একদিন পিছিয়ে যায়।

দুপক্ষই তাদের অবস্থানে অনড় থাকায় সিদ্ধান্ত গভীর রাত পর্যন্ত গড়ায়।

দফায় দফায় বৈঠকেও সিদ্ধান্ত না আসার পর এক পর্যায়ে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিষয়টিতে হস্তক্ষেপ করেন তিনি স্থানীয় সরকার প্রতিমন্ত্রী জাহাঙ্গীর কবির নানককে দায়িত্ব দেন বিষয়টির একটি সম্মানজনক সুরাহা করতে, এমনটি জানা যাচ্ছে স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে।

রাতে কয়েক-দফা বৈঠকের পর সর্বশেষ গভীর রাতে সংসদ ভবন এলাকায় জাহাঙ্গীর কবির নানকের সরকারি বাসভবনে অনুষ্ঠিত সর্বশেষ একটি বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয় নুহাশ পল্লীতেই শেষ শয্যা হবে লেখকের।

ওই বৈঠকগুলোতে লেখকের পরিবারের সদস্য ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি নাসিরউদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু।

বিবিসি বাংলাকে তিনি বলেন, 'বারডেমের হিমঘর থেকে সকাল নয়টায় লেখকের মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে নুহাশ পল্লীতে। সেখানে বাদ-জোহর আরো এক দফা নামাজে জানাজার পর সেখানেই তাকে দাফন করা হবে।'

humayun ahmed

লেখককে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে শহীদ মিনারে জনতার ঢল।

'এটি তার বর্তমান স্ত্রী শাওনের ইচ্ছেমতই হয়েছে।' বলছিলেন মিস্টার ইউসুফ।

তিনি আরো বলছিলেন, লেখকের ভাইয়েরা এবং প্রথম পক্ষের সন্তানেরা অনিচ্ছাসত্ত্বেও এ সিদ্ধান্ত মেনে নিয়েছেন।

'সন্তানেরা বললো যে আমরা আমাদের বাবাকে এভাবে আর কষ্ট দিতে চাইনা। হিমঘরে রাখতে চাইনা। মুহাম্মদ জাফর ইকবাল এখানে অত্যন্ত বড় একটি ভূমিকা পালন করেছেন। শেষ পর্যন্ত তিনিই সবার সামনে ঘোষণা দিয়েছেন যে হুমায়ূন আহমেদকে নুহাশ পল্লীতে দাফন করা হবে।'

একই ধরনের খবর

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻