BBC navigation

সিরিয়াকে হুশিয়ারি তুর্কী সামরিক বাহিনীর

সর্বশেষ আপডেট বুধবার, 10 অক্টোবর, 2012 13:17 GMT 19:17 বাংলাদেশ সময়
তুর্কী সামরিক বাহিনীর প্রধান জেনারেল নেসদেত ওজিল সীমান্ত এলাকা সফর করেছেন

তুর্কী সামরিক বাহিনীর প্রধান জেনারেল নেসদেত ওজিল সীমান্ত এলাকা সফর করেছেন

তুরস্কের সামরিক বাহিনীর প্রধান হুশিয়ারি দিয়েছেন যে সিরিয়ার দিক থেকে গোলাবর্ষণ বন্ধ না হলে তারা এর শক্ত জবাব দেবেন।

সামরিক বাহিনীর চিফ অব স্টাফ জেনারেল নেসদেত ওজিল বলেন, গত সপ্তাহে সীমান্তে সিরিয়ার দিক থেকে গোলাগুলির জবাব তারা ইতোমধ্যে দিয়েছে, কিন্তু দরকার হলে তারা আরও জোরালো হামলা চালাতে প্রস্তুত।

জেনারেল ওজিল সীমান্তে মোতায়েন তুর্কী বাহিনী পরিদর্শন করেছেন।

"সিরিয়ার দিক থেকে গোলাগুলির জবাব ইতোমধ্যে দেওয়া হয়েছে, কিন্তু দরকার হলে আরও জোরালো হামলা চালাতে আমরা প্রস্তুত "

জেনারেল নেসদেত ওজিল, তুর্কী সামরিক বাহিনীর প্রধান

এদিকে নেটো বলেছে, সিরিয়ার সংঘাত যদি সীমান্তের বাইরে ছড়িয়ে পড়ে, তারা তুরস্ককে রক্ষায় তৈরি।

তুর্কী সেনাপ্রধানের মন্তব্য থেকে এটা পরিষ্কার গত কয়েকদিন ধরে সিরিয়া ও তুরস্ক সীমান্তের কাছে থেকে থেকেই যেভাবে গোলাবর্ষণ হচ্ছে - তার পাশাপাশি দুপক্ষের মধ্যে বাগযুদ্ধও কিন্তু থেমে নেই।

তুরস্কের সশস্ত্র বাহিনীর চিফ অব স্টাফ জেনারেল নেসদেত ওজিল বুধবার সীমান্তের কাছে আকচাকালে শহরে সফরে গিয়েছিলেন - যেখানে গত সপ্তাহে সিরিয়ার ছোঁড়া গোলায় দুজন মহিলা নিহত হন, মারা যায় তিনটি শিশুও।

তুরস্ক ও সিরিয়ার সীমান্ত এলাকায় উত্তেজনার পর সৈন্য মোতায়েন

তুরস্ক ও সিরিয়ার সীমান্ত এলাকায় উত্তেজনার পর ব্যাপক সৈন্য মোতায়েন

জেনারেল ওজিল ওই শহরটি পরিদর্শন করেন, গোলাবর্ষণে নিহতদের পরিবার-পরিজনের সঙ্গে কথা বলেন এবং তারপর সেখানে উপস্থিত সাংবাদিকদের জানান, তুরস্ক ইতিমধ্যেই সিরিয়ার গোলাবর্ষণের পাল্টা জবাব দিয়েছে - কিন্তু এরপরেও যদি গোলাবর্ষণ না থামে তাহলে তুরস্ক আরও কঠোর প্রত্যাঘাত করার জন্য প্রস্তুত আছে।

গত এক সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে সিরিয়া-তুরস্ক সীমান্তের কাছে এই গোলাবর্ষণ চলছে, কিন্তু কোনও পক্ষের দিক থেকে এত কঠোর ভাষায় কোনও হুঁশিয়ারি এর আগে আসেনি।

বিবিসির প্রতিরক্ষা ও কূটনীতি বিষয়ক সংবাদদাতা জোনাথন মার্কাস বলছেন, গোটা ঘটনায় আঙ্কারার ধৈর্যের বাঁধ যে ক্রমশই ভাঙছে - সেনাপ্রধানের এই মন্তব্য থেকে সেটা একেবারে স্পষ্ট।

এ ব্যাপারে তুরস্ক বারবারই একটা কথা বলছে - যুদ্ধ শুরু করার কোনও ইচ্ছে তাদের নেই, কিন্তু সিরিয়াকে আগে সংযত হতে হবে।

তুর্কী প্রধানমন্ত্রী রেচেপ তায়িপ এর্দোয়ান নিজেই বলেছেন - সিরিয়ার সঙ্গে যুদ্ধ শুরু করার কোনও অভিপ্রায় তাঁর দেশের নেই - কিন্তু নিজেদের ভূখণ্ডকে রক্ষা করার অধিকার তুরস্কের অবশ্যই আছে, আর সেই অধিকার প্রয়োগ করতে তারা কোনও দ্বিধা করবেন না।

সিরিয়া থেকে ছোঁড়া গোলা তুরস্কের ভেতরে গিয়ে পড়ছে

সিরিয়া থেকে ছোঁড়া গোলা তুরস্কের ভেতরে গিয়ে পড়ছে

তবে সমস্যা হল, সিরিয়ার দিক থেকে ছোঁড়া গোলা সীমান্ত পেরিয়ে তুরস্কে আসাটা পুরোপুরি বন্ধ হচ্ছে না - ফলে উত্তেজনা রয়েই যাচ্ছে।

সিরিয়ার গোলাবর্ষণের আসল নিশানা যদি তুরস্ক নাও হয়, তারা কিন্তু সেগুলোর ভুল নিশানায় আঘাত করাটা ঠেকাতে পারছে না - হয় তারা সে কাজে সক্ষম নয়, অথবা সেটা করার ইচ্ছা দেখাচ্ছে না।

কারণটা যাই হোক, খুব শিগগিরি এই গোলাবর্ষণ একেবারে বন্ধ না-হলে তুরস্ক-সিরিয়া সীমান্তে একটা পুরোদস্তুর সংঘর্ষ শুরু হওয়ার ঝুঁকি রয়েই যাচ্ছে - এবং পর্যবেক্ষকরা কেউই সেই সম্ভাবনা উড়িয়ে দিতে পারছেন না।

এমন কী, জাতিসংঘের মহাসচিব বান কি মুন নিজেও দুদিন আগে মন্তব্য করেছেন, সীমান্তে এই গোলাবর্ষণের ফলে পরিস্থিতি ভীষণ বিপজ্জনক হয়ে উঠেছে।

পুরো পরিস্থিতিটাই আসলে নেটো-র সদস্য দেশগুলোর জন্য বেশ বিব্রতকর।

তুরস্ক নেটোর অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সদস্য, নেটোর কর্মকাণ্ডের খুব বড় কেন্দ্রও তুরস্ক।

তুরস্কের আকচাকালে শহরে সিরিয়ার গোলা হামলায় গত সপ্তাহে পাঁচজন নিহত হয়

তুরস্কের আকচাকালে শহরে সিরিয়ার গোলা হামলায় গত সপ্তাহে পাঁচজন নিহত হয়

ফলে ওই জোটে তাদের শরিকরাও এখন বেশ অস্বস্তির সঙ্গে গোটা পরিস্থিতির দিকে সতর্ক নজর রাখছে।

নেটো জোটের কোন সদস্য আক্রান্ত হলে বা জোটভুক্ত কোন দেশের সার্বভৌমত্ব বিপন্ন হলে নেটো ঐক্যবদ্ধভাবে সেই হুমকি প্রতিহত করবে - এটাই নেটোর প্রাথমিক শর্ত এবং তুরস্কের ক্ষেত্রেও তার কোন ব্যতিক্রম হওয়ার কারণ নেই।

বস্তুত গতকাল মঙ্গলবার নেটোর পক্ষ থেকে একটি বিবৃতি জারি করা হয়েছে, যাতে সিরিয়াকে পরিষ্কার হুমকির সুরে নেটো বলেছে - প্রয়োজন হলে তারা যে কোন সময় তুরস্কর পাশে দাঁড়াবে।

সিরিয়ার দিক থেকে তুরস্কের ভূখণ্ডে এই গোলাবর্ষণ যে আন্তর্জাতিক আইনের লঙ্ঘন - নেটো সিরিয়াকে সে কথাও মনে করিয়ে দিয়েছে এবং বলেছে তুরস্ক যদি এতে বিপন্ন বোধ করে, তাহলে তুরস্ককে রক্ষা করার জন্য নেটো জোট সঙ্গে সঙ্গে এগিয়ে আসবে।

কিন্তু পরিস্থিতি আসলেই অত দূর গড়াবে কি না, সেটা এখনও বোঝা যাচ্ছে না।

সংবাদদাতারা বলছেন, এই সব হুমকিতে সিরিয়া কতটা ভয় পায়, বা গোলাবর্ষণ থামায় কি না সেটা দেখার জন্যই নেটো অপেক্ষা করছে!

সম্পর্কিত বিষয়

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻