BBC navigation

ভারত সফর শেষে ঢাকায় ফিরলেন খালেদা জিয়া

সর্বশেষ আপডেট শনিবার, 3 নভেম্বর, 2012 11:18 GMT 17:18 বাংলাদেশ সময়

বাংলাদেশের বিরোধী নেত্রী খালেদা জিয়া প্রায় এক সপ্তাহের ভারত সফর শেষে শনিবার ঢাকায় ফিরে এসেছেন।

তাঁর ভারত সফরের শেষ দিনে তিনি নয়াদিল্লীতে রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির সঙ্গে দেখা করেন।

ভারতের রাষ্ট্রপতি ভবন থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়, এই বৈঠকে খালেদা জিয়া ভারতের সঙ্গে শক্তিশালী এবং বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক গড়তে তার দলের অঙ্গীকার পুর্নব্যক্ত করেন।

তিনি আরও জানান, ভারতের প্রধানমন্ত্রী এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রীর সঙ্গেও তাঁর ভালো আলোচনা হয়েছে।

ভারতীয় রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জি বলেন, ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে সহযোগিতার বিরাট সম্ভাবনা রয়েছে। তিনি আরও বলেন, একজনের পক্ষে বন্ধু বেছে নেয়া সম্ভব, কিন্তু প্রতিবেশী বদলানো সম্ভব নয়। কাজেই দুই দেশকে বন্ধুত্বপূর্ণ পরিবেশে বাস করতে হবে এবং সবক্ষেত্র সহযোগিতা বাড়ানোর জন্য সর্বোত চেষ্টা চালাতে হবে।

খালেদা জিয়ার সফর সঙ্গী এবং বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শমসের মবিন চৌধুরী জানান, রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির সাথে গত ২৮শে অক্টোবর বৈঠক নির্ধারিত থাকলেও তা পিছিয়ে সফরের শেষ দিনে শনিবার নিয়ে আসা হয়। এক ঘন্টারও বেশী সময়ের এই বৈঠকে সীমান্ত হত্যাকান্ড, অভিন্ন নদীর পানি বন্টন, বাণিজ্য ও বিনিয়োগ ইত্যাদি বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়।

মিস্টার চৌধুরী বলছেন, খালেদা জিয়ার সাথে ভারতের ক্ষমতাসীন সরকার ও বিরোধী দলের বিভিন্ন পর্যায়ে যে সৌহার্দ্যপূর্ণ ও আন্তরিক পরিবেশে আলোচনা হয়েছে তাতে দুদেশের মধ্যে সর্বদলীয় সম্পর্কের ব্যাপারটি এখন আর শুধু কথার মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই, সেটা প্রকৃতপক্ষে বাস্তবায়িত হয়েছে। তবে এই সম্পর্ক বজায় রাখা হবে নিজ নিজ দেশের স্বার্থ অক্ষুন্ন রেখেই।

খালেদা জিয়ার এই ভারত সফর ছিলো বহুল আলোচিত। ভারতবিরোধী হিসেবে বিএনপির যে বরাবরের একটা ইমেজ রয়েছে, সেটা থেকে দলটি বেরিয়ে আসবার চেষ্টা দলটির চেয়ারপার্সন তার এই সফরে করেছেন বলে বলছেন বিশ্লেষকরা।

এই সফর থেকে বিএনপি আসলে কি পেলো? রাজনৈতিক বিশ্লেষক ড. মিজানুর রহমান শেলী বলছেন, বড় একটা প্রতিবেশীর সাথে দৃশ্যমান সমঝোতা স্থাপিত হলো যেটি তারা ভবিষ্যতে হয়তো ক্ষমতায় গেলে কাজে লাগাতে পারবে। ।

এখানে উল্লেখ করা যেতে পারে, খালেদা জিয়ার এই সফরের আগে ভারত সফর করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদ এবং ক্ষমতাসীন আওয়ামীলগের সাধারণ সম্পাদক ও স্থানীয় সরকার মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামও। স্বল্প সময়ের ব্যবধানে প্রধান প্রধান রাজনৈতিক দলগুলোর শীর্ষস্থানীয় ব্যক্তিদের এসব সফর নিয়ে বাংলাদেশের রাজনৈতিক অঙ্গনে নানা জল্পনা-কল্পনা চলছে।

সম্পর্কিত বিষয়

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻