BBC navigation

আশুলিয়ায় অগ্নিকাণ্ড: ওয়ালমার্টের চুক্তি বাতিল

সর্বশেষ আপডেট মঙ্গলবার, 27 নভেম্বর, 2012 10:30 GMT 16:30 বাংলাদেশ সময়
বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ খুচরা বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান ওয়ালমার্ট

বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ খুচরা বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান ওয়ালমার্ট

বাংলাদেশের গার্মেন্ট কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে শতাধিক শ্রমিক নিহত হওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্রের খ্যাতনামা প্রতিষ্ঠান ওয়ালমার্ট তাদের একটি পোশাক সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করেছে।

বিশ্বের বৃহত্তম রিটেইলার বা খুচরা বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান ওয়ালমার্ট তাদের ওয়েবসাইটে দেওয়া বিবৃতিতে বলেছে যে, পোশাক সরবরাহকারী ঐ প্রতিষ্ঠানটি তাদের অনুমোদন না নিয়ে বাংলাদেশের তাজরিন ফ্যাশনের কারখানাকে সাবকনট্রাক্টে পোশাক তৈরির কাজ দেয় যা তাদের নীতিমালার সরাসরি লঙ্ঘন।

ওয়ালমার্ট বলছে, ‘এই ঘটনা আমাদের জন্যে চরম বিব্রতকর। নিরাপত্তা বিষয়ক শিক্ষা ও প্রশিক্ষণের মান উন্নয়নের জন্যে আমরা বাংলাদেশের পোশাক শিল্পের সাথে কাজ অব্যাহত রাখবো।‘

অবশ্য ওয়ালমার্টের বিবৃতিতে পোশাক সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানটির নাম উল্লেখ করা হয়নি। সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানটি বাংলাদেশের কীনা বিবৃতি সেকথাও উল্লেখ করা হয়নি।

শনিবার রাতে ঢাকার আছে আশুলিয়ায় তাজরিন ফ্যাশনের বহুতল কারখানায় অগ্নিকাণ্ডে ১১১ জন নিহত হয়।

ওয়ালমার্ট নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করেছে।

আশুলিয়ার এই গার্মেন্ট কারখানায় অগ্নিকাণ্ডের পর কর্মস্থলে পোশাক শ্রমিকদের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

বেসরকারি হিসেবে বাংলাদেশে গার্মেন্ট কারখানার সংখ্যা প্রায় ৪,৫০০।

প্রায়শই এসব কারখানাগুলোতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে যাতে বহু শ্রমিক প্রাণ হারিয়েছে।

আন্তর্জাতিক বাজারে তৈরি পোশাক রপ্তানি করে বাংলাদেশ উল্লেখযোগ্য পরিমাণে বৈদেশিক মুদ্রা আয় করে থাকে।

আর বেশিরভাগ ক্রেতাই যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপে।

ওয়ালমার্টের ওয়েবসাইটে দেওয়া তথ্যে দেখা যাচ্ছে, কারখানায় অগ্নি-নিরাপত্তার যথেষ্ট ব্যবস্থা না থাকায় ২০১১ সালে তারা বাংলাদেশের ৪৯টি কারখানার সাথে কাজ করা বন্ধ করে দিয়েছে।

সম্পর্কিত বিষয়

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻