BBC navigation

গণধর্ষণের শিকার ভারতীয় যুবতীর মৃত্যু

সর্বশেষ আপডেট শনিবার, 29 ডিসেম্বর, 2012 23:17 GMT 05:17 বাংলাদেশ সময়
দিল্লীতে গণধর্ষনের শিকার যুবতীর মৃত্যু

সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে ছাত্রীর মৃত্যু হয়

ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে চলন্ত বাসে গণধর্ষণের শিকার হওয়া মেডিকেলের ছাত্রী সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসারত অবস্থায় শনিবার ভোরে মারা গেছে।

হাসপাতালের একজন মুখপাত্র জানান মৃত্যুকালে তার পরিবার তার সঙ্গে ছিল।

সিঙ্গাপুরে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ শুক্রবার তার মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচার করে। তবে বুধবার ভারতীয় সরকারের সিদ্ধান্তে তাকে সিঙ্গাপুরে স্থানান্তর করার আগে তার দু’বার হার্ট এ্যাটাক হয় বলে ডাক্তাররা জানিয়েছে। সিঙ্গাপুরে নেবার আগে দিল্লীতে হাসপাতালে তাঁর পেটে তিনবার অস্ত্রোপচার করা হয়। এ ছাড়া তাঁর ফুসফুস ও মস্তিষ্কে সংক্রমণ হয়েছিল, তলপেটেও গুরুতর জখম ছিল।

মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালের প্রধান নির্বাহী কেলভিন লো এক বিবৃতিতে জানান, হাসপাতালে ভতির সময় থেকেই তার অবস্থা খুবই গুরুতর ছিল।

বিবৃতিতে বলা হয়- ছাত্রীর অবস্থা খুবই শোচনীয় ছিল, তার কোন অঙ্গপ্রত্যঙ্গই কাজ করছিলনা, সে শেষ পর্যন্ত নিজের শরীরের সাথেই যেন যুদ্ধ করছিল। তাকে সুস্থ করে তোলার জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করা হলেও তার অবস্থার অবনতি ঘটতেই থাকে।

প্রায় দু’সপ্তাহ আগে দক্ষিণ দিল্লিতে বন্ধুর সঙ্গে সিনেমা দেখে বাড়ী ফেরার পথে একটি চলন্ত বাসে ড্রাইভার ও তাঁর সঙ্গীরা কয়েক ঘন্টা ধরে ধর্ষণ করেন ঐ ছাত্রীকে।

এদিকে ধর্ষণের প্রতিবাদে ভারতে বিক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে। গতকালও নয়াদিল্লিতে ব্যাপক বিক্ষোভ হয়েছে।

এই লাগাতার চাপের মুখে ভারত সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে এখন থেকে দেশের যে কোনও জায়গায় ধর্ষণের অপরাধীদের নাম, ছবি, ঠিকানা, সবটাই ওয়েবসাইটে প্রকাশ করে দেওয়া হবে৻

প্রাথমিকভাবে দিল্লি পুলিশের ওয়েবসাইটে ওই শহরের ধর্ষণকারীদের তথ্য থাকবে, আর পরে জাতীয় অপরাধ রেকর্ড ব্যুরোর ওয়েবসাইটে ধর্ষণকারীদের তথ্য পাওয়া যাবে৻

সম্পর্কিত বিষয়

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻