BBC navigation

যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতি কি খাদে পড়তে যাচ্ছে?

সর্বশেষ আপডেট সোমবার, 31 ডিসেম্বর, 2012 02:23 GMT 08:23 বাংলাদেশ সময়

যুক্তরাষ্ট্রে ব্যয় সংকোচন ও কর বৃদ্ধি ঠেকাতে মরিয়া হয়ে শেষ মূহুর্তের প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে দেশটির আইন প্রণেতারা।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা রিপাবলিকানদের ওপর চাপ বাড়াচ্ছেন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা রিপাবলিকানদের ওপর সমঝোতার জন্য চাপ বাড়াচ্ছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসে চরমভাবে বিভক্ত নেতৃবৃন্দ ব্যয় সংকোচন ও কর বৃদ্ধি ঠেকাতে শেষ মূহুর্তের প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

বাজেট বিষয়ে ঐকমত্য না হলে নতুন বছরের প্রথম দিনেই ব্যয় সংকোচন ও কর বৃদ্ধির পদক্ষেপগুলো কার্যকর হয়ে যাবে।

আর তাই সিনেট ও কংগ্রেস রবিবারের ছুটির দিনেও অধিবেশনে বসার জন্য প্রস্তুত রয়েছে।

আইন প্রণেতারা এখন তাদের ভাষায়, মার্কিন অর্থনীতিকে খাদে পড়ে যাওয়ার হাত থেকে রক্ষার শেষ চেষ্টা চালাচ্ছেন।

রিপাবলিকান ও ডেমোক্র্যাটদের মধ্যে যদি জানুয়ারির ১ তারিখের আগেই ব্যয় হ্রাস ও কর বৃদ্ধির বিষয়ে একটি ঐক্যমত্য না হয়, তাহলে অর্থনীতিবিদরা বলছেন, আবারো চরম আর্থিক মন্দাবস্থায় ফিরে যাবে আমেরিকা।

এখন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা এবং কংগ্রেসের আইন প্রণেতাদের মধ্যে ঐকমত্য না হওয়া মানে ৬০ হাজার কোটি ডলারের কর বৃদ্ধি ও ব্যয় হ্রাস বাস্তবায়ন, যা দেশটির জন্য এক বড় সংকট হিসেবে দেখা হচ্ছে।

তবে তারা যদি কোন ঐকমত্যে আসতে ব্যর্থ হন, তাহলে আরেকটি বিকল্পের ওপর আজ সোমবার প্রেসিডেন্ট ওবামা এক ভোটের প্রস্তাব করেছেন।

এই বিকল্প পদক্ষেপে মধ্য ও নিম্ন আয়ের মানুষের ওপর কর বৃদ্ধির চাপ পড়বে না এবং একই সাথে বেকার সুবিধা অব্যাহত থাকবে।

এক টেলিভিশন সাক্ষাতকারে প্রেসিডেন্ট ওবামা বলেছেন, ছাড় দেয়ার বিষয়টি এখন রিপাবলিকানদের বোঝা উচিত।

কর বৃদ্ধি ও ব্যয় সংকোচন

"রিপাবলিকানরা এটি অবশ্যই বুঝবে যে তারা শতভাগ সাফল্য লাভ করতে পারবে না বরং তাদের একটি আপোষে আসতে হবে"

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা

তিনি বলেন, পুরো বিষয়টিতে যে স্বচ্ছতা সারা বছর ধরে মার্কিন জনগণ বিতর্কের সময় দেখেছে, তা এখন হুমকির মুখে। একটি ভারসাম্যের বিষয়ে তারা পরিষ্কার সিদ্ধান্ত দিয়েছে। আমি আশা করি রিপাবলিকানরা এটি অবশ্যই বুঝবে যে তারা শতভাগ সাফল্য লাভ করতে পারবে না বরং তাদের একটি আপোষে আসতে হবে।

এর আগে শনিবার মি.ওবামা বলেন, একটি সমঝোতা না হলে তা প্রতিটি আমেরিকান নাগরিকের জন্য সমস্যার সৃষ্টি করবে।

বর্তমান যে সংকট তার মূলে রয়েছে ২০১১ সালের সরকারি ঋণের সীমা ও বাজেট ঘাটতি মোকাবেলায় পদক্ষেপের ব্যর্থতা।

সেসময় রিপাবলিকান ও ডেমোক্রেটরা কঠিন সিদ্ধান্ত নেয়ার বিষয়টি স্থগিত রাখে ২০১২ সালের ৩১ ডিসেম্বর অর্থাৎ আজ পর্যন্ত।

একই সাথে সিদ্ধান্ত নেয়া হয় ১ জানুয়ারি থেকে বাধ্যতামূলক ব্যয় সংকোচন ও কর বৃদ্ধি কার্যকর হবে।

সম্পর্কিত বিষয়

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻