BBC navigation

ধর্ষিতা কিশোরীকে নিয়ে চিকিৎসকদের উদ্বেগ

সর্বশেষ আপডেট বুধবার, 2 জানুয়ারি, 2013 13:01 GMT 19:01 বাংলাদেশ সময়

বাংলাদেশে দলবদ্ধ ধর্ষণের শিকার এক কিশোরীর মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন তাঁর চিকিৎসকরা।

ঘটনার চার সপ্তাহ পরও এই কিশোরী এর তীব্র মানসিক আঘাত সামলে উঠতে পারেনি বলে জানিয়েছেন তারা। তবে শারীরিকভাবে মেয়েটির অবস্থা এখন আশংকামুক্ত।

এদিকে এই ধর্ষণের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে আটক পাঁচ ব্যক্তিকে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাদের হেফাজতে নিয়েছে।

গত বছরের ৭ই ডিসেম্বর এই ধর্ষণের ঘটনা ঘটলেও এ নিয়ে মামলা হয় ৩১ শে ডিসেম্বর। তবে ঐ দিনই তড়িৎ গতিতে পুলিশ পাঁচ জনকে আটক করে। এদের মধ্যে একজন ধর্ষিতা কিশোরীর বান্ধবী। এই মেয়েটি ধর্ষণকারী চার যুবকের সহযোগী বলে অভিযোগ করা হচ্ছে।

ঢাকার ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারের একজন চিকিৎসক বিবিসি বাংলাকে জানান, ধর্ষণের শিকার কিশোরীটিকে এখনো ঘুমের ওষুধ দিয়ে রাখতে হচ্ছে। কারণ মেয়েটি এখনো ঘটনার ‘শক’ কাটিয়ে উঠতে পারেনি। কাউকে দেখলেই ভয়ে চিৎকার করে উঠছে।

ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে নির্যাতনের শিকার নারীদের চিকিৎসা এবং আইনী সহায়তা দেয়া হয়।

গত মাসের ৭ই ডিসেম্বর এই ধর্ষণের ঘটনা ঘটলেও এটি পুলিশের নজরে আসে ৩১শে ডিসেম্বর।

১০ই ডিসেম্বর মেয়েটির অচেতন দেহ উদ্ধার করা হয় রেল লাইনের পাশ থেকে।

জাতীয় মহিলা আইনজীবি সমিতি এই মেয়েটিকে এখন সব ধরণের সহায়তা দিচ্ছে।

সংস্থার প্রধান সালমা আলী বিবিসিকে জানান, লোক লজ্জার ভয়ে মেয়েটির পরিবার ঘটনাটি প্রকাশ করতে চায়নি। সেজন্যে পুলিশের কাছে প্রথমে অভিযোগও করেনি।

চিকিৎসার জন্য যখন মেয়েটিকে যখন প্রথম হাসপাতালে নেয়া হয়, তখনই প্রথম ধর্ষণের ঘটনা ফাঁস হয়।

সম্পর্কিত বিষয়

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻