BBC navigation

মালি পুনর্গঠনে ফরাসী সহযোগিতার আশ্বাস

সর্বশেষ আপডেট রবিবার, 3 ফেব্রুয়ারি, 2013 02:24 GMT 08:24 বাংলাদেশ সময়

মালিতে সবচেয়ে বিপর্যয়ের শিকার নারী ও শিশুরা

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওল্যাঁদ মালি পুনর্গঠনে ফরাসী সহযোগিতা বাড়ানোর আশ্বাস দিয়েছেন।

এ সময় তিনি দেশটির ইসলামপন্থী বিদ্রোহীদের হাতে ধ্বংসপ্রাপ্ত সাংস্কৃতিক স্থাপনাগুলো পুনঃনির্মাণেরও অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

মালির ইসলামপন্থী জঙ্গিদের বিরুদ্ধে সাম্প্রতিক লড়াই এ সফলতার জন্য ফরাসী ও মালির সামরিক বাহিনীকে অভিনন্দন জানাতে তিনি এখন মালি সফর করছেন।

শনিবার মালির রাজধানীর বামাকোতে এক সমাবেশে মিস্টার ওল্যাঁদ বলছেন যে, তাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি, কারণ মালির সব এলাকা এখনো মুক্ত হয়নি। তাদের আরো কাজ করতে হবে এবং ইসলামপন্থী বিদ্রোহীদের মোকাবেলায় ফ্রান্স সবসময়ই পাশে থাকবে।

এ সময় মিস্টার ওল্যাঁদ আরো বলেন, দেশটির উত্তরাঞ্চলে মালি সরকারের নিয়ন্ত্রণ পুনঃপ্রতিষ্ঠা করার ব্যাপারেও ফরাসী সহায়তা অব্যাহত থাকবে। তিনি সবাইকে, এমনকি বিদ্রোহীদের প্রতিও মানবাধিকার বজায় রাখার আহ্বান জানান।

মালির অন্তবর্তীকালীন নেতা ডিওনকন্ডা ট্রাওরে দেশটির উত্তরাঞ্চলকে ‘বর্বরতা ও অন্ধকার’ থেকে মুক্ত করায় ফ্রান্সকে ধন্যবাদ জানান।

এর আগে উত্তরাঞ্চলীয় শহর টিম্বাকটুতে মিস্টার ওল্যাঁদ বলেন যে জাতিসংঘ সমর্থিত আফ্রিকান বাহিনী মালিতে মোতায়েন হবার আগ পর্যন্ত ফরাসী বাহিনী দেশটিতে অবস্থান করবে। তবে তিনি বলেন, ফরাসী সৈন্যদের দীর্ঘমেয়াদে মালিতে থাকার কোন পরিকল্পনা নেই।

টিম্বাকটু থেকে বিবিসির সংবাদদাতা জানাচ্ছেন, গত কদিনের সামরিক সাফল্য সত্ত্বেও সেখানে ইসলামী জঙ্গীরা নতুন করে দলবদ্ধ হতে পারে বলে আশংকা করা হচ্ছে।

ফলে ফরাসী সেনারা মালিতে তাদের অবস্থান ও নিরাপত্তার দায়িত্ব হস্তান্তরে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে ব্যর্থ হলে মালি আবারো আগের অবস্থানে ফিরে যেতে পারে।

সম্পর্কিত বিষয়

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻