BBC navigation

বাংলাদেশে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল আইনে সংশোধনের ঘোষণা আইন প্রতিমন্ত্রীর

সর্বশেষ আপডেট শনিবার, 9 ফেব্রুয়ারি, 2013 08:16 GMT 14:16 বাংলাদেশ সময়
শাহবাগের শপথ: যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসী না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে।

শাহবাগের শপথ: যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসী না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে।

বাংলাদেশের আইন প্রতিমন্ত্রী কামরুল ইসলাম বলেছেন, রাষ্ট্রপক্ষের আপীলের ক্ষমতা বাড়ানোর উদ্দেশ্যে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল আইন সংশোধনের উদ্যোগ নিয়েছেন তারা।

জামায়াতে ইসলামী নেতা কাদের মোল্লাসহ সকল যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির দাবীতে ঢাকার শাহবাগসহ দেশটির বিভিন্ন স্থানে চলতে থাকা বিক্ষোভের পটভূমিতে তিনি এই ঘোষণা দিলেন।

এদিকে আন্দোলনকারীরা বলছেন, তারা তাদের আন্দোলন চালিয়ে যাবেন। ঢাকার বাইরেও দেশের বিভিন্ন স্থানে একই দাবীতে আন্দোলন অব্যাহত রয়েছে ।

সংবাদ সম্মেলন করে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনাল আইন সংশোধনের এ উদ্যোগের কথা জানান আইন প্রতিমন্ত্রী কামরুল ইসলাম।

qamrul islam

আইন প্রতিমন্ত্রী কামরুল ইসলাম

তিনি বলেন, বর্তমানে আইনের যে ধারা রয়েছে, তাতে অভিযুক্ত ব্যাক্তি কোন অপরাধে খালাস পেলেই শুধুমাত্র রাষ্ট্রপক্ষ আপীল করতে পারে। তবে এই ধারা পরিবর্তনের জন্য সরকার উদ্যোগ নিচ্ছে বলে জানান মি. ইসলাম।

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল আইনের ২১ এর ২ ধারা অনুযায়ী, বর্তমানে শুধুমাত্র অভিযুক্ত ব্যক্তি কোন মামলায় খালাস পেলে সেই রায়ের বিরুদ্ধেই আপীল করার সুযোগ রয়েছে রাষ্ট্রপক্ষের।

আইনটি সংশোধন হলে, এই আইনের সামান্য ত্রুটি দূর হবে বলে মন্তব্য করেন মি. ইসলাম। তবে রায় হয়ে যাওয়া মামলাগুলোও এই সংশোধনীর আওতায় পড়বে কিনা তা নিয়ে এখনো চূড়ান্ত কোন সিদ্ধান্ত হয়নি বলে জানান আইন প্রতিমন্ত্রী।

"রাষ্ট্র শুধুমাত্র খালাসের বিরুদ্ধে নয়, সংক্ষুব্ধ হলে পূর্ণাঙ্গ রায়ের বিরুদ্ধেও আপিল করতে পারবে।"

কামরুল ইসলাম, আইন প্রতিমন্ত্রী

মি. ইসলাম বলেন, আইনমন্ত্রী দেশে ফেরার পর এবিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

এদিকে যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির দাবীতে পঞ্চম দিনের মতো হাজার হাজার মানুষ ঢাকার শাহবাগ মোড়ে অবস্থান করছেন।

সকালের দিকে শাহবাগের রাস্তার একটি অংশ খুলে দেয়া হলেও বিকেল হতে না হতেই মানুষের সংখ্যা বাড়ার সাথে সাথেই আবারো সেই রাস্তা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

আন্দোলনকারীদের একজন ব্লগার মাহমুদুল হক মুন্সী বলছেন, তারা চান যুদ্ধাপরীধের ফাঁসির এই দাবী নিয়ে সংসদে আলোচনা হোক।

ঢাকার বাইরেও বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির দাবীতে বিক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে।

চট্টগ্রামে জামায়াতে ইসলামীর ডাকা হরতাল উপেক্ষা করে কয়েক হাজার মানুষ সমবেত হয়েছেন শহরের প্রেসক্লাবের সামনে। হরতাল চলাকালে সেখানে বড় কোন সহিংসতার কোন খবরও পাওয়া যায়নি।

একই ধরনের খবর

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻