BBC navigation

ঢাকায় শাহবাগ আন্দোলনের ১৩ দিনে একযোগে জাতীয় পতাকা উত্তোলন

সর্বশেষ আপডেট রবিবার, 17 ফেব্রুয়ারি, 2013 08:40 GMT 14:40 বাংলাদেশ সময়
faridpur school

ফরিদপুরের একটি স্কুলে জাতীয় পতাকা উত্তোলন কর্মসূচি পালন

বাংলাদেশে একাত্তরের মানবাতবিরোধী অপরাধীদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে চলমান আন্দোলন কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ রোববার রাজধানী ঢাকা ও ঢাকার বাইরের বিভিন্ন জেলায় জাতীয় সঙ্গীত গেয়ে প্রতিবাদ জানানো হয়েছে।

এরপর দেশের বিভিন্ন জায়গায় জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়েছে।

একযোগে সারাদেশে সকাল দশটায় পালন করা হয়েছে জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন এবং পতাকা উত্তোলন কর্মসূচি ।

পূর্বঘোষিত এই কর্মসূচিতে শাহবাগ চত্বর থেকে প্রতিবাদী মানুষের সাথে সাথে দেশের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা অংশ নিয়েছে।

গত শুক্রবার শাহবাগ চত্বরের গণজাগরণ মঞ্চ থেকে আজ দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এই কর্মসূচি পালনের ডাক দেওয়া হয়েছিল। এর মধ্য দিয়ে ত্রয়োদশ দিনে পা রাখল শাহবাগের এই আন্দোলন ।

অন্যদিকে গত শুক্রবার ঢাকায় মিরপুরের পল্লবীতে নিহত একজন ব্লগার ও শাহবাগের একজন আন্দোলনকারী আহমেদ রাজিব হায়দারের মরদেহ কাপাসিয়ায় তার গ্রামের বাড়িতে নেয়া হয়েছে এবং সেখানেই তাকে সমাহিত করা হবে।

শনিবার শাহবাগ চত্বরেই বহু আন্দোলনকারী তার নামাজে জানাজায় অংশ নেন এবং এই হত্যাকান্ডের শোককে শক্তিতে পরিণত করে আন্দোলন আরও বেগবান করার ঘোষণা দেন।

গত শুক্রবার মহাসমাবেশ থেকে অবস্থান কর্মসূচির সময় সাতঘন্টায় সীমিত রাখার ঘোষণা দেওয়া হলেও, ব্লগার রাজীবের হত্যা এবং জামায়াতের ডাকা সোমবারের হরতালের প্রতিবাদে তা বাতিল করে টানা আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেয়া হয়।

শাহবাগের আন্দোলনকারীরা অভিযোগ করেছেন ধর্মভিত্তিক রাজনৈতিক সংগঠন জামায়াত-ই-ইসলামী ও ইসলামী ছাত্র শিবির এই হত্যাকান্ডের জন্য দায়ী।

পল্লবী থানায় একটি হত্যা মামলাও দায়ের করেছেন নিহত ব্লগার রাজীবের বাবা।

এদিকে, জামায়াত-ই ইসলামী ও শিবিরের ডাকা সোমবারের হরতাল প্রতিহত করার যে ঘোষণা শাহবাগের প্রতিবাদী মঞ্চ থেকে দেওয়া হয়েছিল তার সাথে একাত্মতা প্রকাশ করেছে দোকান মালিক এবং পরিবহন মালিক সমিতি।

দোকান মালিক সমিতির সভাপতি আমির হোসেন খান বিবিসি বাংলাকে জানিয়েছেন আগামিকাল সোমবার সারা দেশে সব দোকান খোলা রাখা হবে এবং সেজন্য তারা আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহায়তা চেয়েছে।

পরিবহন সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েতউল্লাহ জানান, সবধরনের যানবাহন আগামিকাল রাস্তায় নামানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে সমিতির পক্ষ থেকে। চলতি পথে সাধারণ মানুষের নিরাপত্তার বিষয়টি দেখার জন্য প্রশসানের সহায়তাও চাওয়া হয়েছে তাদের পক্ষ থেকে।

সম্পর্কিত বিষয়

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻