BBC navigation

এবার ঘোড়ার মাংস কেলেঙ্কারিতে নেসলে

সর্বশেষ আপডেট মঙ্গলবার, 19 ফেব্রুয়ারি, 2013 00:38 GMT 06:38 বাংলাদেশ সময়

সুইজারল্যান্ডের সদর দপ্তরে নেসলের লোগো।

ঘোড়ার মাংসকে গরুর মাংস বলে বিক্রি করার অভিযোগ নিয়ে ইউরোপ-জুড়ে তুলকালাম চলছে।

এই কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে পড়া প্রতিষ্ঠানের তালিকায় সর্বশেষ অভিযুক্ত হিসেবে যুক্ত হয়েছে বিশ্বের বৃহত্তম খাদ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান নেসলের নাম।

খাদ্য-পণ্যে ঘোড়ার মাংসের অস্তিত্ব আবিষ্কার হবার পর নেসলে বাজার থেকে বেশ কিছু পণ্য সরিয়ে নিয়েছে।

সুইজারল্যান্ডে নেসলের সদর দপ্তর থেকে প্রকাশ করা এক বিবৃতিতে প্রতিষ্ঠানটি বলছে, গরুর মাংসের র‍্যাভিওলি, টরটেলিনি এবং ল্যাসানিয়া-এই তিন ধরণের খাবার তারা বাজার থেকে তুলে নিয়েছে।

এর আগে এক পরীক্ষায় ধরা পড়ে যে এই খাবার গুলোতে শতকরা এক ভাগেরও বেশী ঘোড়ার মাংসের অস্তিত্ব রয়েছে।

নেসলের একজন মুখপাত্র বলছেন, একটি জার্মান সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান থেকে পাঠানো খাদ্যদ্রব্যে এই সমস্যাটি ধরা পড়েছে।

এখন তারা গরুর মাংস ব্যাবহার করা হয় এমন প্রতিটি খাদ্যপন্য তারা পরীক্ষা করে দেখছে।

একদিন আগেই নেসলে ঘোষণা দিয়েছিলো যে ইউরোপ-জুড়ে তুলকালাম বাধানো ঘোড়ার মাংস কেলেঙ্কারি থেকে মুক্ত তারা।

আর তার একদিন পরেই এই কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে বাজার থেকে তাদের পণ্য তুলে নেবার ঘোষণা প্রমাণ করছে যে গরুর মাংসের নাম করে ঘোড়ার মাংস বিক্রির ঘটনা যতটা ধারণা করা হয়েছিলো তার চাইতেও ব্যাপক।

সমালোচকরা বলছেন, এর দ্বারা একটি বিষয় স্পষ্ট হচ্ছে, যে খাদ্য শিল্প কতটা অনিয়ন্ত্রিত এবং ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে।

এখন পর্যন্ত ইউরোপের বারোটি দেশে ঘোড়ার মাংসকে গরুর মাংস বলে চালানোর প্রমাণ পাওয়া গেছে।

এর মধ্যে নেসলের উৎস-দেশ সুইজারল্যান্ডও রয়েছে। সেখানে নির্ভেজাল এবং স্থানীয়ভাবে উৎপাদিত অর্গানিক খাবারের জন্য বিখ্যাত সুইস প্রতিষ্ঠান কুপ সোমবার বাজার থেকে অন্তত নয়টি খাদ্য-পণ্য সরিয়ে নিতে বাধ্য হয়েছে।

সুইস কর্তৃপক্ষ এই প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে অবহেলার অভিযোগ আনতে যাচ্ছে বলেও খবরে জানা যাচ্ছে।

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻