BBC navigation

বাংলাদেশে সহিংস বিক্ষোভের জন্য জামায়াতকে দায়ী করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

সর্বশেষ আপডেট শুক্রবার, 22 ফেব্রুয়ারি, 2013 16:28 GMT 22:28 বাংলাদেশ সময়

ঢাকায় সংঘর্ষ চলাকালে পুলিশ বিক্ষোভকারীদের লক্ষ্য করে রাবার বুলেট ছুঁড়ছে

শুক্রবার বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলা এবং শহরে যে সহিংস বিক্ষোভ হয়েছে, জামায়াতে ইসলামী তার নেতৃত্বে ছিল বলে অভিযোগ করেছেন দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

কয়েকটি ইসলামপন্থী দল এবং সংগঠনের ডাকা বিক্ষোভের সময় তিনটি জেলায় পুলিশের সাথে সংঘর্ষে অন্তত চারজন নিহত হয়েছে।

সিলেট এবং ফেনি থেকে পাওয়া খবরে জানা গেছে বিক্ষোভকারীরা স্থানীয় শহীদ মিনারে ভাংচুর করেছে।

যুদ্ধাপরাধীদের বিচার এবং সর্বোচ্চ শাস্তির দাবীতে আন্দোলনের জন্য গঠিত 'গণজাগরন মঞ্চ'ও কয়েক জায়গায় ভেঙ্গে দেওয়া হয়েছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহিউদ্দীন খান আলমগির বলেন দেশের বিভিন্ন জায়গায় 'মৌলবাদী শক্তির' যে উত্থান দেখা গেছে তা জামায়াতের নেতৃত্বেই হয়েছে।

ঢাকায় পুলিশ বলেছে, খেলাফত মজলিসসহ বিভিন্ন দলের কর্মসূচীতে জামায়াতের কর্মীরা তৎপর ছিল কীনা, তা তারা খতিয়ে দেখবে।

ইসলামপন্থী দল এবং সংগঠনের ডাকা বিক্ষোভের সময় রাজধানীর বায়তুল মোকাররম মসজিদ এলাকায় পুলিশের সাথে বিক্ষোভকারীদের ব্যাপক সংঘর্ষ হয়েছে।

পুলিশ বলছে, শান্তিপূর্ণ মিছিল করার প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করে নির্ধারিত এলাকা পেরিয়ে মিছিলকারীরা ভাংচুর শুরু করার পরই পুলিশ টিয়ার গ্যাস এবং রাবার বুলেট ব্যবহার করে।

ঢাকার বাইতুল মোকারর্‌মে বিক্ষোভ

বিক্ষোভ কর্মসূচীতে পলিশের বাধার প্রতিবাদে ইসলামপন্থী দলগুলো রোববার সারা দেশে হরতালের ডাক দিয়েছে।

বায়তুল মোকাররম এলাকা ছাড়াও ঢাকার কাঁটাবন, লালবাগ এবং ধানমন্ডিসহ বেশ কয়েকটি এলাকায় পুলিশের সাথে বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষের খবর পাওয়া গেছে।

পল্টন এলাকায় সংঘর্ষে সাংবাদিক এবং পুলিশসহ বেশ অনেকজন আহত হয়েছেন।

মোট কতজন আহত হয়েছেন তা নিরপেক্ষভাবে যাচাই করা সম্ভব হয়নি, তবে বায়তুল মোকাররমের ভেতরে আশ্রয় নেয়া ইসলামপন্থী দলগুলোর নেতা-কর্মীরা বলছেন, তাদের অনেকেই গুরুতর আহত হয়েছেন।

অন্তত পাঁজজন সাংবাদিক এবং তিনজন পুলিশ আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

ঢাকার শাহবাগে যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির দাবীতে চলমান আন্দোলনের আয়োজকদের বিরুদ্ধে ইসলাম অবমানান করার অভিযোগ তুলে শুক্রবারের বিক্ষোভের ডাক দেওয়া হয়।

গত কয়েকদিন ধরেই বিভিন্ন মাদ্রাসা-মসজিদে, ইন্টারনেটে এবং কয়েকটি পত্র-পত্রিকায় শাহবাগ আন্দোলনের আয়োজক ব্লগারদের ‘নাস্তিক’ এবং ‘ইসলাম-বিদ্বেষী’ আখ্যায়িত করা হয়েছে।

জুমার নামাজের পরপরই কয়েক হাজার বিক্ষোভকারীরা বায়তুল মোকাররম মসজিদ থেকে মিছিল বের করে।

পুলিশ বলছে, বিক্ষোভকারীরা শাহবাগের দিকে যেতে চাইলে প্রেসক্লাবের সামনেই তাদের আটকে দেয়া হয়।

এসময় পুলিশ প্রচুর পরিমাণে রাবার বুলেট ছোড়ে। বিক্ষোভকারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল ছুড়েছিল বলেও অভিযোগ করে পুলিশ।

সংঘর্ষ চলাকালে কর্তব্যরত সাংবাদিকদের বেশ কয়েকজন আহত হয়।

এদের কযেকজনের ওপর বিক্ষোভকারীরা হামলা চালায় এবং অন্তত দুজন পুলিশের রাবার বুলেটে আহত হয়।

ঢাকার বাইরেও চট্টগ্রাম ও রাজশাহীসহ বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় বিক্ষোভকারীদের সাথে পুলিশের সংঘর্ষ হয়েছে।

ব্লগে ইসলাম ধর্ম এবং নবীকে অপমান করা হয়েছে এই অভিযোগে ইসলামী ঐক্যজোট এবং খেলাফত মজলিশসহ বেশ কয়েকটি ইসলামপন্থী দল আজ সারাদেশে বিক্ষোভের ডাক দেয়।

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻