BBC navigation

দুদিন পরেও জরুরি ত্রাণ না পৌঁছনর অভিযোগ

সর্বশেষ আপডেট শনিবার, 18 মে, 2013 15:05 GMT 21:05 বাংলাদেশ সময়
patuakhali devastation

পটুয়াখালীতে ঝড়ে বিধ্বস্ত হয়েছে প্রচুর ঘরবাড়ি

বাংলাদেশের উপকূলে ঘূর্ণিঝড় আঘাত হানার পর দুদিন পরেও অনেক জায়গাতেই এখনো পর্যন্ত কোনো জরুরি ত্রাণ পৌঁছায়নি বলে অভিযোগ করেছেন ক্ষতিগ্রস্তরা।

স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও সংবাদদাতারা জানাচ্ছেন, ঘূর্ণিঝড়ে প্রাণহানি অনেক কম হলেও পটুয়াখালী, ভোলাসহ বেশ কয়েকটি জেলায় ঘরবাড়ি ও ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

কিন্তু সেই অনুপাতে সেখানে ত্রাণ তৎপরতা নেই বললেই চলে।

তবে সরকার দাবি করছে, ঝড় আঘাত হানার আগেই তেরটি জেলায় পর্যাপ্ত নগদ অর্থ ও খাদ্য সহায়তা পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

রানী বেগম শনিবারই বাড়ি ফিরেছেন আশ্রয় কেন্দ্র থেকে। দক্ষিণাঞ্চলীয় জেলা পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার লালুয়া ইউনিয়নের বড় ৫ নং গ্রামে তার আবাস। শনিবার ফিরে দেখেন তার বসত ঘর উধাও।

"খাবারই তো কোন ব্যবস্থা নেই। এখন আমাদের উপোস দিতে হচ্ছে। কেউই কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না।"

রানী বেগম, পটুয়াখালীর কলাপাড়ার বাসিন্দা

‘থাকার ব্যবস্থা কী করবো। খাবারই তো কোন ব্যবস্থা নেই। এখন আমাদের উপোস দিতে হচ্ছে। কেউই কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না।’ বলছিলেন রানী বেগম।

বৃহস্পতিবার পটুয়াখালীর খেপুপাড়ায় প্রথম আঘাত হানে ঘুর্ণিঝড় মহাসেন। এর পাশ্ববর্তী ইউনিয়ন লালুয়া। স্থানীয় সংবাদদাতারা বলছেন মহাসেনের আঘাত ততটা জোরদার ছিলনা বলে এবং আগাম প্রস্তুতি থাকায় প্রাণহানি হয়েছে অনেক কম, কিন্তু অনেক দীর্ঘসময় জুড়ে ঝড় অবস্থান করায় ফসল, ঘরবাড়ি, গাছপালা এবং রাস্তাঘাটের ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ ঘুর্ণিঝড় সিডরের ক্ষয়ক্ষতির তুলনায় কম নয়।

রানী বেগম অভিযোগ করছিলেন, পটুয়াখালীর বেশিরভাগ ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাতেই দুদিন পর এখনও সরকারি বা বেসরকারি কোনো ত্রাণ সাহায্যই পৌঁছয় নি।

লালুয়া ইউনিয়নে এক হাজারেরও বেশি মানুষ গৃহহীন অবস্থায় রয়েছে বলে জানাচ্ছেন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রেজাউল করিম বিশ্বাস এবং বলছেন সরকারি বরাদ্দের চিঠি তিনি আজই (শনিবার) হাতে পেয়েছেন, এখনো বরাদ্দ বুঝে পাননি।

bhola devastation

ঘূর্ণিঝড়ে লন্ডভন্ড হয়ে গেছে ভোলার বিস্তীর্ণ অঞ্চল

মি. বিশ্বাস বলছেন 'এর আগেও এধরনের দুর্যোগের ক্ষেত্রে পরদিনই সরকারি ত্রাণ সাহায্য বুঝে পেয়েছেন তারা। কিন্তু এবার দেখা যাচ্ছে দেরি হচ্ছে।'

উপকূলীয় আরেক ক্ষতিগ্রস্ত জেলা ভোলা, সেখানকার চর কুকরী মুকরীতে ৫০০ ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে বলে জানাচ্ছেন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাসেম মহাজন। তবে একশ পরিবারের জন্য সরকারের বরাদ্দ করা কুড়ি কেজি করে চাল এখন পর্যন্ত পাওয়া গেছে।

মিঃ মহাজন বলছেন, তার পাশের ইউনিয়ন নজরুলনগরে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ আরো বেশি হলেও সেখানেও এখন পর্যন্ত খুব বেশি ত্রাণ পৌঁছয় নি।

সরকার ত্রাণ পাঠিয়েছে আগেই

বাংলাদেশের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর বলছে, বঙ্গোপসাগরে যখন ঘূর্ণিঝড় মহাসেন তৈরি হয়েছে তখনই তেরটি জেলার জেলা প্রশাসকের কাছে সাড়ে তিন হাজার মেট্রিকটন চাল এবং নগদ সোয়াকোটি টাকা পাঠানো হয়েছে, যাতে করে ঝড় আঘাত হানার পরপরই ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে কুড়ি কেজি করে চাল এবং তিন হাজার করে টাকা ত্রাণ সহায়তা দেয়া যায়।

কিন্তু এত প্রস্তুতি সত্ত্বেও দুদিন পরও কোন কোন জায়গায় ত্রাণ না পৌঁছানোর খবরের প্রতিক্রিয়ায় অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোহাম্মদ আব্দুল ওয়াজেদ বলছেন, তিনি গতকালই জেনেছেন যে কোন কোন ইউনিয়নে ত্রাণ পৌঁছয় নি।

"স্থানীয় প্রশাসন আমাকে জানিয়েছে গতকাল শুক্রবার ছুটির দিনে গোডাউন বন্ধ থাকায় তারা চাল তুলতে পারেনি। এটা ওই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দুর্বলতা। সে ভুল করেছে। "

মো: আব্দুল ওয়াজেদ, মহাপরিচালক, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর

'স্থানীয় প্রশাসন আমাকে জানিয়েছে গতকাল শুক্রবার ছুটির দিনে গোডাউন বন্ধ থাকায় তারা চাল তুলতে পারেনি। এটা ওই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দুর্বলতা। সে ভুল করেছে। সে জেলা প্রশাসককে জানালে আমরা কমিশনার পর্যায়ে কথা বলে ব্যবস্থা করে দিতাম।’

ছড়িয়ে পড়ছে রোগবালাই

এদিকে, উপদ্রুত এলাকাগুলোতে এখন ডায়রিয়াসহ বিভিন্ন রোগ মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়বার খবর আসছে।

পটুয়াখালী থেকে স্থানীয় বাসিন্দারা বলছেন, পানীয় জলের উৎসগুলোতে লবণাক্ত পানি ঢুকে পড়ায় সেখানে ডায়রিয়ার প্রকোপ দেখা দিয়েছে।

প্রতিদিন সেখানে নতুন নতুন মানুষ ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে পড়ছে বলে জানাচ্ছেন সংবাদদাতারাও।

সম্পর্কিত বিষয়

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻