বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে তুর্কী প্রধানমন্ত্রীর হুঁশিয়ারি

  • ১৩ জুন ২০১৩

তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী রেচেপ তাইয়িপ এরদোয়ান ইস্তান্বুলের গেজি পার্ক দখল করে রাখা বিক্ষোভকারীদের প্রতি চূড়ান্ত হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।

অবিলম্বে পার্কের দখল ছাড়ার জন্য বিক্ষোভকারীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, সরকারের ধৈর্যের সীমা ছাড়িয়ে যাচ্ছে।

রাজধানী আঙ্কারায় শাসক দল একে পার্টির এক বৈঠকে তিনি বলেন গেজি পার্ক জনগণের সম্পদ- দখলদারদের সেখানে বসে থাকার অধিকার নেই।

রেচেপ তাইয়িপ এরদোয়ানের ক্ষমতাসীন এ কে পার্টি গেজি পার্কের উন্নয়ন পরিকল্পনা নিয়ে গণভোটের প্রস্তাব দিয়েছে। উল্লেখ্য সরকারের উন্নয়ন পরিকল্পনার বিরুদ্ধে শুরুতে পরিবেশবাদীরা এই বিক্ষোভ শুরু করলেও পরে তা ব্যাপক সরকার বিরোধী বিক্ষোভ রূপ নেয়।

ওই পার্ক এবং সংলগ্ন তাকসিম স্কোয়ারে প্রায় দু সপ্তাহ ধরে পুলিশ ও বিক্ষোভকারীদের মধ্যে সংঘর্ষ চলছে ।

আন্দোলনকারীরা বলে দিয়েছে সরকার ঐ পার্কে শপিং মল তৈরির পরিকল্পনা বাতিল না করা পর্যন্ত তারা গেজি পার্ক ছেড়ে যাবে না ।

সরকারের হুঁশিয়ারি অগ্রাহ্য করে তাকসিম স্কোয়ারে এবং ইস্তানবুলের শহরতলি সুলতানগাজিতে মানুষ বিক্ষোভ করছে ।

অন্যদিকে রাজধানী আঙ্কারাতে দাঙ্গা পুলিশ বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে কাঁদানে গ্যাস ছুঁড়েছে।

বিক্ষোভকারীরা প্রধানমন্ত্রী রেচেপ তাইয়েপ এরদোয়ানের বিরুদ্ধে অভিযোগ করছে যে তিনি ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্রের ওপর ইসলামী মূল্যবোধ চাপিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছেন ।

এদিকে এই অচলাবস্থা অবসানের চেষ্টায় আন্দোলনকারীদের একটি প্রতিনিধিদলের সঙ্গে আলাপ আলোচনার পর একে পার্টি বলেছে ইস্তানবুলের ওই পার্কের ভবিষ্যত নিয়ে তারা গণভোট করতে রাজি আছে।

একে পার্টির এমপি পেলিন গুনদেস বাকুশ বলছেন নাগরিকদের অধিকারকে তারা সম্মান করেন।

“আমাদের দল প্রতিবাদের অধিকার, বাক্ স্বাধীনতা, এবং সমাবেশের অধিকারকে সমর্থন করে । সরকার তুরস্কে এধরনের স্বাধীনতা প্রতিষ্ঠা করতে চায় এবং শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে সরকারের সংলাপের উদ্যোগ একটা ইতিবাচক পদক্ষেপ।”

তবে এই গণভোটের রায় যে সরকারকে মানতে হবে তেমন কোনো বাধ্যবাধকতা সরকারের নেই, যদিও মিঃ এরদোয়ান বলেছেন তিনি এই রায়কে যথাযথ মর্যাদা দেবেন।