মিশরে মোরসি সমর্থকদের মিছিলে গুলি, নিহত ৩জন

  • ৫ জুলাই ২০১৩
egypt pro morsi
Image caption ক্ষমতাচ্যুত প্রে. মোরসি সমর্থকরা রাস্তায় নেমেছেন শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদের লক্ষ্যে

মিশরের সেনাবাহিনী ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মোরসির সমর্থকদের ওপর গুলি চালালে অন্তত তিনজন মারা গেছে বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে। এই বিক্ষোভকারীরা একটি সামরিক ঘাঁটির দিকে মিছিল করে যাচ্ছিল বলে বলা হচ্ছে।

বিবিসির মধ্যপ্রাচ্য সংবাদদাতা বলছেন তিনি সৈন্যদের প্রথমে আকাশের দিকে গুলি করতে দেখেছেন, এরপর তিনি দেখেছেন সৈন্যরা বন্দুকের নল নামিয়ে নিয়েছে।

তিনি আরো দেখেছেন এক ব্যক্তি মাটিতে লুটিয়ে পড়েছে এবং তার পোশাক রক্তাক্ত হয়ে গেছে।

মুসলিম ব্রাদারহুড যারা আজ শান্তিপূর্ণ সমাবেশের ডাক দিয়েছিল তারা দাবি করছে তিনজন মারা গেছে।

বিক্ষোভকারীরা অফিসার্স ক্লাব অফ দ্য প্রেসিডেন্সিয়াল গার্ড ভবন যেটি সেনাবাহিনীর ভবন সেদিকে মিছিল করে যাচ্ছিল। সেখানেই মিঃ মোরসিকে আটক রাখা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তবে সেনাবাহিনী তাজা গুলি চালিয়েছে একথা সেনাবাহিনীর একজন মুখপাত্র অস্বীকার করেছেন।

বিবিসির সংবাদদাতারা বলছেন বিক্ষোভকারীদের দিক থেকেও গুলির আওয়াজ শোনা গেছে।

বিক্ষোভকারীদের মধ্যে ক্ষোভ ক্রমেই বাড়ছে বলে সংবাদদাতারা জানাচ্ছেন।

মিশরের রাজধানী কায়রোর বিভিন্ন এলাকায় হাজার হাজার মোরসি সমর্থকরা আজ জড়ো হন।

প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মোরসিকে ক্ষমতাচ্যুত করার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে মিঃ মোরসির দল মুসলিম ব্রাদারহুড শান্তিপূর্ণ সমাবেশের ডাক দেয়।

মিঃ মোরসির বিরোধীরাও রাস্তায় পাল্টা বিক্ষোভে নেমেছেন।

সহিংসতার আশঙ্কায় কায়রোর গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে, রাস্তায় টহল দিচ্ছে সেনাবাহিনীর ট্যাংকবহর।

সেনাবাহিনী আগে বলেছিল তারা কোনো নির্দিষ্ট দলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে না।

যদিও মিঃ মোরসিসহ মুসলিম ব্রাদারহুডের অনেক ঊর্ধ্বতন সদস্যকেই ইতিমধ্যে আটক করা হয়েছে।

গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে অন্তত তিনশ’ জনের বিরুদ্ধে।

মুসলিম ব্রাদারহুড যারা এই শান্তিপূর্ণ সমাবেশের ডাক দিয়েছে তারা আজকের (শুক্রবার) দিনটিকে তাদের ভাষায় 'প্রত্যাখান দিবস' হিসাবে আখ্যায়িত করছে।

Image caption সাইনাইএর নিরাপত্তা চৌকির ওপর হামলার খবর পাওয়া যাচ্ছে

কায়রোর বিভিন্ন এলাকার মসজিদগুলোয় জুম্মার নামাজ উপলক্ষে হাজার হাজার বিক্ষোভকারী জড়ো হয়েছেন।

মিঃ মোরসির ক্ষমতার মেয়াদ আকস্মিকভাবে শেষ করে দেওয়ার যে ঘোষণা এই সপ্তাহে সেনাবাহিনী দিয়েছে তা মানতে অস্বীকৃতি জানাচ্ছে মুসলিম ব্রাদারহড। তারা বলছে এটা অসাংবিধানিক।

মুসলিম ব্রাদারহুডের মুখপাত্র গেহাদ আল হাদ্দাদ নতুন প্রশাসনের সঙ্গে সহযোগিতা করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন ।

কোনো কোনো মোরসি সমর্থক এমনকী প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেনারেল আল সিসিকে 'খতম' করার দাবিও জানাচ্ছেন।

জেনারেল সিসি-ই মিঃ মোরসির প্রেসিডেন্ট মেয়াদের অবসানের ঘোষণা দিয়েছিলেন।

কায়রোয় বিবিসির সংবাদদাতা রানা জাওয়াদ বলছেন বহু মানুষের জন্য আজকের দিনটিই হবে রাস্তায় সেনাবাহিনীর নিয়ন্ত্রণের প্রথম পরীক্ষার দিন।

এদিকে সাইনাইয়ে সেনা অবস্থানের ওপর সন্দেহভাজন ইসলামী জঙ্গীদের হামলার পর মিশর গাজার সাথে তাদের সীমান্ত পারাপার চৌকি বন্ধ করে দিয়েছে।

সাইনাই বদ্বীপে মিশরের সেনা ও পুলিশ নিরাপত্তা চৌকির ওপর শুক্রবার ইসলামী জঙ্গীরা রকেট ও মর্টার হামলা চালালে একজন সৈন্য মারা গেছে বলে খবরে বলা হচ্ছে।

ইসরায়েল ও গাজা ভূখন্ডের মধ্যে সীমান্ত এলাকার কাছে আল-আরিশ বিমানবন্দরের নিরাপত্তা চৌকি এবং রাফায় একটি পুলিশ চৌকিকে লক্ষ্য করে হামলা চালানো হয়েছে বলে কর্মকর্তারা জানাচ্ছেন।

গত দুই বছরে সাইনাইতে নিরাপত্তা স্থাপনা এবং তেলের পাইপলাইনের ওপর উপর্যুপরি জঙ্গী হামলার ঘটনা ঘটেছে। তবে সাম্প্রতিক হামলার ঘটনার সঙ্গে সাম্প্রতিক রাজনৈতিক পট পরিবর্তনের কোনো যোগাযোগ আছে কীনা তা এখনও স্পষ্ট নয়।

এই খবর নিয়ে আরো তথ্য