তুরস্কে সাবেক সেনাপ্রধানের কারাদন্ড

  • ৫ অগাস্ট ২০১৩
রায়ের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে পুলিশী অভিযান
Image caption রায়ের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে পুলিশী অভিযান

তুরস্কে ক্ষমতাসীন ইসলামপন্থী সরকারকে উৎখাতের ষড়যন্ত্র করার দায়ে সাবেক সেনাপ্রধানসহ অনেকের যাবজ্জীবন কারাদন্ড হয়েছে।

পাঁচ বছর ধরে প্রায় ৩০০ সেনা কর্মকর্তা, রাজনৈতিক নেতা, শিক্ষাবিদ এবং সাংবাদিকের বিরুদ্ধে বিচারকাজ চলার পর সোমবার আদালতে রায় দেয়া হল।

এই মামলার আসামীদের মধ্যে ছিলেন সাবেক সেনাপ্রধান ইলকের ব্যাশবুগসহ অনেক উচ্চপদস্থ সামরিক অফিসার, সাংবাদিক, আইনজীবী, একাডেমিক এবং রাজনীতিক।

Image caption জেনারেল ইলকের ব্যাশবুগ, সাবেক সেনা প্রধান

এদের বিরুদ্ধে অভিযোগ: প্রায় এক দশক আগে প্রধানমন্ত্রী রেচেপ তাইপ এরদোয়ানের সরকারকে তারা উৎখাতের ষড়যন্ত্র করছিলেন।

সরকারি কৌঁসুলিরা বলছেন, এই ষড়যন্ত্র করা হয় ধর্মনিরপেক্ষতাবাদী জাতীয়তাবাদীদের এক চক্রের মাধ্যমে।

এরা একটা সামরিক অভ্যুত্থানের ক্ষেত্র তৈরির জন্য বিচার বহির্ভূত হত্যাকান্ড এবং বোমাবাজির পরিকল্পনা করছিলেন।

বিচারকরা তাদের রায়ে এসব অভিযোগে জেনারেল ব্যাশবুগকে যাবজ্জীবন সাজা দিয়েছেন, আরও কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ জেনারেল, রাজনীতিক, আইনজীবি এবং একাডেমিককেও যাবজ্জীবনসহ বিভিন্ন মেয়াদের সাজা দেয়া হয়েছে।

তুরস্কের সাম্প্রতিক ইতিহাসে এটিকে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিচার বলে মনে করা হচ্ছে।

অনেকে এই বিচারকে দেখছেন সামরিক বাহিনীকে বেসামরিক নিয়ন্ত্রণে আনার লক্ষ্যে একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ হিসেবে, কারণ সামরিক বাহিনী দীর্ঘদিন তুরস্কের বেসামারিক সরকারের ওপর খবরদারি করে এসেছে।

কিন্তু বিরোধীরা এই বিচারকে দেখছেন তুরস্কের ধর্মনিরপেক্ষতাবাদীদের রাজনৈতিকভাবে দমনের চেষ্টা হিসেবে।

তুরস্কের সেনাবাহিনী নিজেদেরকে দেশটি ধর্মনিরপেক্ষতার রক্ষক হিসেবে বিবেচনা করে।

এই রায়ের বিরুদ্ধে ইতোমধ্যে বিক্ষোভ হয়েছে। আদালত ভবনের বাইরে বিক্ষোভরত জনতাকে দমনে পুলিশ টিয়ারগ্যাস এবং জল কামান ব্যবহার করে।

এই খবর নিয়ে আরো তথ্য