জামায়াত নেতা কাদের মোল্লার চূড়ান্ত রায় আগামীকাল মঙ্গলবার

  • ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৩
Image caption জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল আবদুল কাদের মোল্লা

বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় জামায়াতে ইসলামের নেতা আবদুল কাদের মোল্লার দণ্ডাদেশের বিরুদ্ধে করা আপিলের রায় আগামীকাল মঙ্গলবার ঘোষণা করা হবে।

প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বে পাঁচজন বিচারপতির একটি বেঞ্চ সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে এই রায় ঘোষণা করবেন।

জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল আবদুল কাদের মোল্লার দণ্ডাদেশের বিরুদ্ধে আপিলের প্রায় দু’মাস পর এই চূড়ান্ত রায় ঘোষণা করা হচ্ছে।

মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় এটিই হবে আপিল বিভাগের প্রথম কোনো রায়।

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল গত ৫ই ফেব্রুয়ারি ১৯৭১ সালে হত্যা ও ধর্ষণের অপরাধে কাদের মোল্লাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়।

এই রায়ের পর কাদের মোল্লার সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে সারাদেশে বিশেষ করে রাজধানী ঢাকার শাহবাগ চত্বরে তরুণদের আন্দোলন শুরু হওয়ার পর সরকার আইন সংশোধন করে আপিলের ক্ষেত্রে প্রসিকিউশন ও আসামী- উভয়পক্ষের সমান সুযোগ তৈরি করা হয়।

Image caption কাদের মোল্লার সর্বোচ্চ সাজার দাবিতে ঢাকার শাহবাগ চত্ত্বরে শুরু হয় তরুণদের আন্দোলন

তার আগে শুধুমাত্র খালাসের ক্ষেত্রে রাষ্ট্রপক্ষ এবং আসামীপক্ষ সব ক্ষেত্রেই আপিল করতে পারতো।

তারপরই কাদের মোল্লার সর্বোচ্চ সাজা চেয়ে এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করে রাষ্ট্রপক্ষ।

আর সাজা থেকে অব্যাহতি চেয়ে তার পরদিনই আপিল করেন কাদের মোল্লার আইনজীবী।

সংশোধিত আইনটি কাদের মোল্লার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে কীনা এ নিয়ে আসামীর আইনজীবী প্রশ্ন তুললে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে প্রধান বিচারপতি কয়েকজন আইনজীবীকে আদালতের বন্ধু বা অ্যামিকাস কিউরি হিসেবে নিয়োগ দেন।

আদালত তাদের পরামর্শ নিয়েছেন।

জামায়াতে ইসলামীর আরো দু’জন নেতা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদী ও মুহাম্মদ কামারুজ্জামানের মৃত্যুদণ্ডের বিরুদ্ধেও আপিল করা হয়েছে।

২০১০ সালে ট্রাইব্যুনাল গঠনের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশে যুদ্ধাপরাধের এই বিচার শুরু হয়।