ভোটাধিকার হারালো আইসিটিতে দন্ডপ্রাপ্তরা

  • ৬ অক্টোবর ২০১৩
জাতীয় সংসদ ভবন
Image caption জাতীয় সংসদ ভবন

বাংলাদেশে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল আইনে দন্ডপ্রাপ্তরা আর কোনও সাধারণ নির্বাচনে প্রার্থী হওয়া বা ভোট দেয়ার অধিকার পাচ্ছেন না।

তাদের এই অধিকার হরণ করে দেশটির জাতীয় সংসদের রোববারের অধিবেশনে একটি আইন পাশ হয়েছে।

তবে আইনমন্ত্রী শফিক আহমেদ বলছেন, সর্বোচ্চ আদালত থেকে যাদের বিরুদ্ধে চূড়ান্ত রায় আসবে, তাদের ক্ষেত্রেই শুধু এই আইন প্রযোজ্য হবে।

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল বা আইসিটি আইনে সাজাপ্রাপ্তদের ভোটার হওয়ার অযোগ্য করে রোববার সংসদের অধিবেশনে একটি বিল উত্থাপন করেন আইনমন্ত্রী শফিক আহমেদ। এই বিলটিকে বলা হচ্ছে, ভোটার তালিকা সংশোধন বিল ২০১৩।

উপস্থিত সংসদ সদস্যের কণ্ঠভোটেই বিলটি পাশ হয়ে যায়। এখন রাষ্ট্রপতি সই করলেই বিলটি আইনে পরিণত হবে।

আইনমন্ত্রী শফিক আহমেদ বিবিসিকে বলেন, আইসিটি আইনে দন্ডপ্রাপ্তরা বাংলাদেশের কোনও নির্বাচনে ভোট দিতে পারবে না। সেই সাথে প্রার্থীও হতে পারবে না।

তবে মি. আহমেদ একটা বিষয় স্পষ্ট করেন, আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে সাজা পেলেই তাকে এই আইনের আওতায় আনা হবে না। এই আইন প্রয়োগের জন্য প্রয়োজন হবে সর্বোচ্চ আদালতের চূড়ান্ত নিষ্পত্তি।

এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ আদালত একজন অভিযুক্তের বিষয়ে আপিল আবেদন চূড়ান্ত করেছে। তিনি হলেন জামায়াতে ইসলামীর অ্যাসিস্টেন্ট সেক্রেটারি জেনারেল আব্দুল কাদের মোল্লা।

মি. আহমেদের বক্তব্য অনুযায়ী এটা এখন বলাই যায় যে ভোটার তালিকা সংশোধনী বিলে রাষ্ট্রপতির স্বাক্ষরের পর সর্বোচ্চ আদালতে ফাঁসীর দন্ডপ্রাপ্ত মি. মোল্লা আর বাংলাদেশে ভোট দিতে পারছেন না।

এই খবর নিয়ে আরো তথ্য