রামপাল প্রকল্প: বাংলাদেশে পরিবেশবাদীদের কথা আমলে নেবে ভারত

  • ৭ অক্টোবর ২০১৩
Image caption রামপালে ভিত্তিপ্রস্তর উন্মোচন করেন শেখ হাসিনা

বাংলাদেশে সুন্দরবনের কাছে রামপালে ভারতের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে যে তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মিত হতে যাচ্ছে, সেখানে পরিবেশ নিয়ে কোনও উদ্বেগের কারণ থাকলে ওই প্রকল্প বাস্তবায়নের সময় সে দিকে অবশ্যই নজর দেওয়া হবে বলে ভারত আজ জানিয়েছে।

ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আজ বলেছে, যদিও প্রাথমিকভাবে তারা রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্রে পরিবেশের ক্ষতি হবে হবে বলে কোনও প্রমাণ পাননি, তার পরেও বিস্তারিত প্রকল্প রিপোর্ট তৈরির সময় পরিবেশবাদীরা যে সব বিষয় নিয়ে আপত্তি তুলেছেন, সেগুলো বিবেচনা করা হবে।

এই প্রকল্পটি নির্মিত হচ্ছে ভারত ও বাংলাদেশের যৌথ অংশীদারিত্বে ,এবং এই প্রথম প্রকল্পের কোনও শরিকের কাছ থেকে পরিবেশবাদীদের দাবিগুলো বিবেচনার আশ্বাস এলো।

মাত্র দুদিন আগেই ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে রামপালে তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছেন ভারত ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী।

তার আটচল্লিশ ঘণ্টার মধ্যেই ভারত এটা স্পষ্ট করে দিল যে এই প্রকল্পে সুন্দরবন ও তার আশেপাশের এলাকায় ব্যাপক পরিবেশগত ক্ষয়ক্ষতি হবে বলে পরিবেশবাদীরা যে কথা বলেছেন, সেটাকে তারা পুরোপুরি উড়িয়ে দিচ্ছেন না।

Image caption রামপালে বিদ্যুৎ কেন্দ্রের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ

রামপালে কয়লা-ভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের বিরুদ্ধে বাংলাদেশে যে ব্যাপক প্রতিবাদ-বিক্ষোভ চলছে, সে দিকে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সৈয়দ আকবরউদ্দীন বিবিসি বাংলাকে বলেন, পরিবেশের দিকটি ভারত কখনওই উপেক্ষা করে না, আর রামপালও তার ব্যতিক্রম নয়।

‘পরিবেশকে আমরা সব সময়ই গুরুত্ব দিই, আর ,’’ মি: আকবরউদ্দীন বলেন।

তিনি বলেন, রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র নিয়ে অনেকে এমন মতামত দিয়েছেন যেটা তার ধারণার সঙ্গে মেলে না।

‘’যখন এই বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ডিটেইলড প্রোজেক্ট রিপোর্ট তৈরি করা হবে, তখন এই মতামতগুলো অবশ্যই বিবেচনা করা হবে, সেই সঙ্গে আরও নানা ফ্যাক্টরও বিবেচনায় রাখা হবে,’’ তিনি বলেন।

এর আগে, প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর উন্মোচনের সময় ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং বলেছিলেন, তিনি চান না, যে এই বিদ্যুৎ প্রকল্পের কারণে সুন্দরবনের মতো অমূল্য প্রাকৃতিক সম্পদের কোনও রকম ক্ষতি হোক

সুন্দরবনকে দু’দেশের এক অভিন্ন ঐতিহ্য বলে বর্ণনা করে মি: সিং বলেন, তিনি অনুরোধ করবেন সর্বোচ্চ পরিবেশগত মান বজায় রেখে যেন প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজ করা হয়।

তবে প্রকল্পটি পুরোপুরি বাতিল করার যে দাবি উঠেছে, তার মধ্যে কোনও যুক্তি নেই বলেই ভারত সরকার ও ভারতীয় বিদ্যুৎ সংস্থা এনটিপিসি-র অভিমত।

কিন্তু এ ব্যাপারে কোনও মন্তব্য করার আগে তারা পরিবেশবাদীদের বক্তব্য শুনতে চান, তাদের উদ্বেগ দূর করার ব্যবস্থা করা যায় কি না সেই চেষ্টা করতে চান।

কিন্তু প্রাথমিকভাবে তারা যে রামপাল নিয়ে উদ্বেগের কোনও কারণ খুঁজে পাননি, সেটাও আজ জানাতে ভোলেননি সৈয়দ আকবরউদ্দিন।