ঢাকায় সব ধরণের মিছিল-সমাবেশ নিষিদ্ধ

dhaka_street_scene
Image caption ঢাকার শনিবার বিএনপি অফিসের সামনের রাস্তা

বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায় রোববার থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য সব ধরণের মিছিল-সভা-সমাবেশ বা মানববন্ধন ইত্যাদি নিষিদ্ধ করেছে পুলিশ।

২৫শে অক্টোবর ঢাকায় আওয়ামী লীগ ও বিএনপির পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি ঘোষণা নিয়ে মানুষের মধ্যে সহিংসতার আশংকা এবং উদ্বেগ তৈরি হওয়াতেই এ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়।

এই নিষেধাজ্ঞা 'ইনডোর' রাজনৈতিক সভা-সমাবেশ অর্থাৎ ঘরে বা মিলনায়তনে সভা করলে তার ওপরও প্রযোজ্য হবে, বিবিসি বাংলাকে এ কথা বলেছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের মুখপাত্র মনিরুল ইসলাম।

আপনার ডিভাইস মিডিয়া প্লেব্যাক সমর্থন করে না

ঢাকা মেট্রোপলিটান পুলিশের ওয়েব্সাইটে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে বলা হয়, "আগামী ২০ অক্টোবর, ২০১৩ হতে পরস্পরবিরোধী কয়েকটি দলের সভা-সমাবেশের কর্মসূচী রয়েছে। সমাবেশগুলোকে সামনে রেখে বিভিন্ন গোষ্ঠী ক্রমাগত প্রকাশ্যে মারাত্মক উস্কানিমূলক ও জননিরাপত্তা বিঘ্নিত করে এমন বক্তব্য প্রদান করে আসছেন। ফলে জনমনে অনিশ্চয়তা, ত্রাস ও আতংক সৃষ্টির প্রকৃত আশংকা দেখা দিয়েছে।"মহানগর পুলিশের মুখপাত্র মনিরুল ইসলামের সাক্ষাৎকার শুনুন এখানে>

এতে বলা হয়, শান্তি ও জননিরাপত্তা রক্ষার স্বার্থে পুলিশ কমিশনার বেনজির আহমেদ রোববার সকাল ৬টা থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত "ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকায় সকল প্রকার মানববন্ধন, বিক্ষোভ সমাবেশ, গণ-অবস্থান, সভা-সমাবেশ, মিছিল, সকল প্রকার ছড়ি বা লাঠি, বিস্ফোরক দ্রব্য ও আগ্নেয়াস্ত্র বহন নিষিদ্ধ ঘোষণা" করছেন।

Image caption বিএনপির কার্যালয়ের সামনে পুলিশ

এমন এক সময় এই ঘোষণা এলো যখন বাংলাদেশে আগামী সাধারণ নির্বাচন কি ধরণের সরকারের অধীনে হবে তা নিয়ে সরকার ও বিরোধীদলের মধ্যে তীব্র দ্বন্দ্ব সৃষ্টি হয়েছে।

একে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক পরিস্থিতি সহিংস হয়ে উঠতে পারে এমন একটা উদ্বেগও তৈরি হয়েছে।

সরকারী দল চাইছে সংবিধানের সবশেষ পরিবর্তন অনুযায়ী বর্তমান সরকার ক্ষমতাসীন থাকা অবস্থাতেই নির্বাচন করতে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতির উদ্দেশ্যে এক ভাষণে শুক্রবার সকল দলের সংসদ সদস্যদের নিয়ে একটি অন্তর্বর্তী মন্ত্রিসভা গঠনের কথাও বলেছেন।

কিন্তু বিরোধীদল চাইছে - একটি নির্দলীয়-নিরপেক্ষ অন্তর্বর্তী সরকারের অধীনে নির্বাচন হোক।

আগামি ২৫ অক্টোবর থেকে এই সরকারের মেয়াদের শেষ ৯০ দিন শুরু হচ্ছে, যার মধ্যেই পরবর্তী নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে হবে।