বাংলাদেশে পোশাকখাতে ৫৩০০ টাকা মজুরি মেনে নিলেন মালিকপক্ষ

  • ১৩ নভেম্বর ২০১৩
garments protest
ন্যূনতম মজুরি কাঠামো বাস্তবায়নের দাবিতে শ্রমিকদের বিক্ষোভ চলছে কিছুদিন ধরে (ফাইল চিত্র)

বাংলাদেশে তৈরি পোশাক শিল্পখাতে ৫৩০০ টাকা ন্যূনতম মজুরি মেনে নিয়েছে তৈরি পোশাক প্রস্তুত ও রপ্তানিকারকদের সংগঠন বিজিএমইএ।

বুধবার রাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে গণভবনে এক বৈঠকে আলোচনার পর পোশাক শিল্প মালিকরা এই সিদ্ধান্ত নেন ।

পোশাক শ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরি ৩ হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে ৫ হাজার ৩০০ টাকা করার যে প্রস্তাব সরকার গঠিত মজুরি বোর্ড দিয়েছিল তা এর আগে মালিকপক্ষ প্রত্যাখান করেছিল।

এখন বিজিএমইএ-র পক্ষ থেকে বলা হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর আহ্বানে সাড়া দিয়ে এবং চলমান বাস্তবতা মেনে নিয়ে তারা মজুরি বাড়ানোর এই প্রস্তাবে রাজি হয়েছেন।

নতুন মজুরি কাঠামো বাস্তবায়নের দাবিতে গত কয়েকদিন ধরে পোশাক শ্রমিকরা আশুলিয়া, সাভার ও গাজীপুরে বিক্ষোভ করছিল।

গাজীপুর ও সাভারে পোশাকশ্রমিকরা বুধবারও বিক্ষোভ করেছে।

বুধবার বিক্ষোভের সময় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে পুলিশসহ বেশ কিছু শ্রমিকের আহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়।

এদিকে শ্রম মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে তারা বৃহস্পতিবার ৫৫টি শ্রমিক সংগঠনের সঙ্গে বৈঠকে বসছে।

আশুলিয়ায় ৩০০র মত গার্মেন্টস কারখানা বুধবার বন্ধ ছিল

বাংলাদেশে গার্মেন্টস কারখানার মালিকরা নিরাপত্তাজনিত কারণে রাজধানী ঢাকার কাছে আশুলিয়ার সমস্ত কারখানা বুধবার বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল।

আশুলিয়ায় তিনশোর মতো কারখানায় বিশ্বের নামীদামী সব ব্র্যান্ডের জন্যে পোশাক তৈরি করা হয়।

শ্রমিক বিক্ষোভের মুখে বুধবার গাজীপুর ও সাভারে বেশ কয়েকটি কারখানা বন্ধ করে দেওয়া হয়।

মজুরি বোর্ড ন্যূনতম মজুরি হিসেবে সরকারের কাছে পাঁচ হাজার তিনশো টাকা প্রস্তাব করেছিল, যা মালিক ও শ্রমিক উভয়পক্ষই প্রত্যাখ্যান করে।

মঙ্গলবার মালিকদের সাথে আলোচনায় বসে শ্রম মন্ত্রণালয়।

আগামীকাল সরকার শ্রমিকদের পঞ্চাশটিরও বেশি সংগঠনের সাথে বৈঠকে বসছে বলে বিবিসি বাংলাকে জানিয়েছেন শ্রম মন্ত্রণালয়ের সচিব মিকাইল শিপার।