ইরাকে ইসলামী জঙ্গীদের সাথে সরকারি বাহিনীর ব্যাপক সংঘর্ষ

ইরাকের পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর ফালুজায় আল-কায়েদার সাথে সংশ্লিষ্ট জঙ্গীদের সাথে সরকারি বাহিনীর ব্যাপক সংঘর্ষের খবর পাওয়া গেছে।

প্রতিবেশী রামাদি শহরেও প্রায় আড়াইশ ইসলামী জঙ্গীর বিরুদ্ধে ইরাকি পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে। স্থানীয় এক সাংবাদিক বিবিসিকে জানিয়েছেন, শহরটি ব্যাপকভাবে বিশৃঙ্খল হয়ে পড়েছে।

সোমবার সরকারবিরোধী সুন্নী বিক্ষোভকারীদের প্রতিবাদ ক্যাম্পে পুলিশ হানা দিলে এই সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়।

ফালুজা ও রামাদি শহরের আল কায়েদার সাথে যুক্ত সংগঠন আইএসআইএসের জঙ্গীদের সাথে ব্যাপক সংঘর্ষ চলছে।

বৃহস্পতিবার আনবার প্রদেশের রামাদি শহরের কিছু অংশের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নিয়েছে আল কায়েদার সাথে যুক্ত সংগঠন আইএসআইএসের জঙ্গীরা।

অন্ততপক্ষে ১০টি পুলিশ স্টেশন দখলে নিয়ে বেশকিছু সংখ্যক বন্দীকে মুক্তি দেয় তারা। সরকারি বিভিন্ন যানবাহনে আগুন দেয়া ও চেক পয়েন্টে অবস্থান নেয়ার ভিডিও পোস্ট করেছে জঙ্গীরা।

তারা প্রধানমন্ত্রী নুরি আল মালিকির বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জও ছুঁড়ে দিয়েছে। সুন্নী সমর্থিত উপজাতীয়রাও রাস্তা দখলে নিয়ে অবস্থান করছে।

তবে তাদের কিছু সংখ্যক সরকারের হয়েও লড়াই করছে বলে সংবাদে জানা যাচ্ছে। এরই মধ্যে ইরাকের বিভিন্ন জায়গায় জঙ্গী হামলায় অন্ততপক্ষে ২৩ জন নিহত হবার খবর পাওয়া গেছে।

ইরাকের আনবার প্রদেশে ফালুজা ও রামাদি শহরে সুন্নী জঙ্গীদের কার্যক্রম বেশ কিছুদিন ধরে বেড়ে চলেছে।

দেশটির সুন্নী সমর্থকরা অভিযোগ করে বলছেন দেশটির শিয়া সমর্থিত সরকার রাজনৈতিকভাবে তাদের ওপর আক্রমণ চালাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী নুরি আল মালিকি অবশ্য এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

এদিকে বাগদাদের উত্তর-পূর্বে অবস্থিত বালাদ রাজ শহরে একটি গাড়ির মার্কেটের সামনে আত্মঘাতী বোমা হামলায় অন্তত ১৬ জন নিহত হয়েছে।