আওয়ামী লীগই পেল নিরঙ্কুশ জয়

  • ৬ জানুয়ারি ২০১৪

বাংলাদেশের ১৪৭ টি নির্বাচনী আসনে হয়ে যাওয়া বিরোধী দল বিহীন একটি বিতর্কিত জাতীয় নির্বাচনের বেশীরভাগ আসনেরই বেসরকারি ফলাফল পাওয়া গেছে।

ভোর চারটার দিকে নির্বাচন কমিশন ১৩৯টি আসনের বেসরকারি ফলাফল জানায়।

অনেক ভোট কেন্দ্রে ভোট-গ্রহণ স্থগিত হবার কারণে বাকী ৮টি আসনের ফলাফল সম্পর্কে পরে সিদ্ধান্ত হবে বলে উল্লেখ করা হয়।

নির্বাচনে শতকরা কত ভাগ ভোট পড়েছে সেটা নিয়ে নির্বাচন কমিশন এখনো কোনও বক্তব্য না দিলেও রাত দুইটার দিকে এক সংবাদ সম্মেলনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ বলেছেন, শতকরা ৯৭ ভাগ ক্ষেত্রেই নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে।

যেমনটি ধারণা করা হয়েছিল, ১৪৭ আসনের মধ্যে আওয়ামীলীগের নৌকা প্রতীকই জিতেছে ১শ ৫টি আসনে।

১৩টি আসন পেয়েছে এইচএম এরশাদের জাতীয় পার্টি।

ফলাফল অনুযায়ী আগে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জেতা ১২৭টি আসন যোগ করলে ২৩২ আসন নিয়ে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়ে গেছে আওয়ামীলীগ।

মোট তেত্রিশটি আসন নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে জাতীয় পার্টি।

দুইটি আসনে জিতেছে জাসদ। ওয়ার্কার্স পার্টি পেয়েছে চারটি আসন।

নবগঠিত দল বিএনএফ এবং তরিকত ফেডারেশন নামে একটি দল পেয়েছে একটি করে আসন।

আর স্বতন্ত্র প্রার্থীরা জিতেছে তেরটি আসনে।

ছোটখাটো অঘটন:

স্বতন্ত্র হিসেবে জেতা প্রার্থীদের অধিকাংশই মূলত আওয়ামীলীগ নেতা।

দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে তারা বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করেন।

এর মধ্যে উল্লেখ করা যেতে পারে ঢাকা-৭ আসনে হাজী মোহাম্মদ সেলিমের কথা।

তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নৌকা প্রতীকের মোস্তফা জালাল মহিউদ্দীনকে হারিয়েছেন।

আবার ঢাকারই আরেকটি আসনে বর্তমানে সরকারের একজন প্রতিমন্ত্রী জাতীয় পার্টির সালমা ইসলাম এই সরকারেরই একজন সাবেক প্রতিমন্ত্রী নৌকা প্রতীকের মান্নান খানকে হারিয়েছেন।

এইচএম এরশাদ নির্বাচনে নেই বলে ঘোষণা দেবার পরও রংপুরের একটি আসনে জিতেছেন।

অবশ্য লালমনিরহাটের একটি আসনে তার পরাজয়ও হয়েছে।

এই খবর নিয়ে আরো তথ্য