ইউক্রেন সংকট নিয়ে কেরি-লাভরভ বৈঠক

ছবির কপিরাইট AP

মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রী জন কেরি রাশিয়ার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ইউক্রেনের অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের সঙ্গে সরাসরি আলোচনার জন্য।

ইউক্রেনের সংকট নিয়ে প্যারিসে রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রী সের্গেই লাভরভের সঙ্গে বৈঠকের সময় মিস্টার কেরি এই আহ্বান জানান।

ইউক্রেনের সংকট শুরু হওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্র এবং রাশিয়ার মধ্যে এটাই ছিল সর্বোচ্চ কূটনৈতিক যোগাযোগ।

এদিকে ক্রাইমিয়া থেকে পাওয়া খবরে বলা হচ্ছে সেখানে রুশ বাহিনী দুটি ইউক্রেনিয়ান মিসাইল সাইটের আংশিক নিয়ন্ত্রণ গ্রহণ করেছে।

রাশিয়া দাবি করছে এসব বাহিনী তাদের নিয়ন্ত্রণে নেই। রাশিয়া এদের স্থানীয় মিলিশিয়া বাহিনী বলে দাবি করছে।

এর আগে জার্মানীর চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মের্কেলের সাথে টেলিফোনে কথা বলার সময় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ওবামা ইউক্রেনের পরিস্থিতি সামাল দিতে কিছু প্রস্তাব করেছেন।

প্রেসিডেন্ট ওবামা বলেন, রাশিয়া যদি মনে করে জাতিগত রুশদের ওপর কোন হুমকি তৈরি হয়েছে, তাহলে ইউক্রেনে আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষক পাঠানো যেতে পারে। কিন্তু ক্রাইমিয়া থেকে রুশ সৈন্যদের ব্যারাকে ফিরিয়ে নিতে হবে। প্রেসিডেন্ট পুতিনের সাথে টেলিফোনেও একইরকম প্রস্তাব দেন মিস্টার ওবামা।

কিন্তু এ ধরণের প্রস্তাবকে রাশিয়া যে খুব গুরুত্ব দিচ্ছে তা মনে হচ্ছেনা । মাদ্রিদে এক সংবাদ সম্মেলনে রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভ বলছিলেন ইউক্রেনে কোন পর্যবেক্ষক যাবে কি না যাবে তা ইউক্রেনের বিষয়।

“এ সিদ্ধান্ত রাশিয়া নিতে পারেনা কারণ ইউক্রেন রাশিয়া নয়। ইউক্রেনের সরকারই সেদেশের মানুষের নিরাপত্তা দেখবে। তবে একইসাথে তিনি বলেন ইউক্রেনের বর্তমান সরকারের কতৃত্ব এখন ক্রাইমিয়া সহ অন্য কিছু অঞ্চলের মানুষজন মানছে না, কারণ এই সরকার এসেছে অবৈধভাবে। সুতরাং ঐ অঞ্চলগুলো যারা নিয়ন্ত্রণ করছে, তাদের সাথে বোঝাপড়া করতে হবে”।

আমেরিকা এবং পশ্চিমা দেশগুলো দাবি করছে ক্রাইমিয়া থেকে রুশ সৈন্য প্রত্যাহার করতে হবে। তবে প্যারিসের বৈঠকের আগে, রাশিয়া বলতে শুরু করেছে, ক্রাইমিয়াতে রুশ সৈন্যদের পোশাকে যে সব অস্ত্রধারীদের দেখা যাচ্ছে, তারা আদৌ রুশ সৈন্য নয়। তারা স্থানীয় মিলিশিয়া যারা কিয়েভের বর্তমান সরকারকে মানে না।

সংবাদদাতারা বলছেন, রাশিয়া যেটা এখন চাইছে, কিয়েভে বর্তমান যে সরকার তা থাকতে পারবে না। বদলে একটা জাতীয় ঐক্যমত্যের সরকার গঠন করতে হবে, যেখানে জাতিগত রুশদের উল্লেখযোগ্য প্রতিনিধিত্ব থাকতে হবে।