বোকো হারামের ভিডিওতে 'অপহৃতা স্কুলছাত্রী'

ভিডিও ফুটেজে অপহৃতা ছাত্রীরা ছবির কপিরাইট Getty
Image caption ভিডিও ফুটেজে অপহৃতা ছাত্রীরা

নাইজেরিয়াতে আড়াইশরও বেশি স্কুল ছাত্রীকে অপহরণের প্রায় এক মাস পর কট্টর ইসলামপন্থী জঙ্গী গ্রুপ বোকো হারাম সোমবার ছাত্রীদের একটি ভিডিও চিত্র প্রকাশ করেছে।

ভিডিও ফুটেজে আপাদমস্তক হিজাব পরা অনেকগুলো মেয়েকে দেখানো হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, এরা সবাই অপহৃত স্কুল ছাত্রী।

১৭ মিনিটের এই ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে খোলা আকাশের নিচে শতাধিক মেয়ে বসে সমস্বরে কোরানের আয়াত পাঠ করছে। তারা পুরো গা ঢাকা কালো পোশাকে এবং মাথায় হিজাব পরা।

ছবির কপিরাইট AFP
Image caption ভিডিও ফুটেজে বক্তব্য রাখছে একজন ছাত্রী

বোকো হারামের নেতা আবুবকর শেকো বলছেন, এরা হচ্ছে চার সপ্তাহ আগে তাদের অপহরণ করা ২৭৮ জন স্কুলছাত্রীর একাংশ এবং তারা ধর্মান্তরিত হয়ে ইসলাম গ্রহণ করেছে।

ভিডিওটিতে তিনটি মেয়ের কথা রয়েছে। এর মধ্যে দু’জন বলেছে, তারা ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছে। অন্য একটি মেয়ে বলেছে, সে মুসলিম। মনে করা হয় অপহৃত মেয়েদের বেশিভাগই খ্রীষ্টান। তবে এর মধ্যে কিছু মুসলিমও রয়েছে।

তাদের হাবভাব শান্ত এবং কোন নির্যাতন করা হয়েছে বলে মনে হচ্ছে না। ভিডিওটি কোথায় রেকর্ড করা হয়েছে তা বলা হয়নি।

নাইজেরিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় বোর্নো প্রদেশের গভর্নর কাশিম শেট্টিমা বলছেন, তিনি জানতে পেরেছেন যে এই মেয়েদের ছোট ছোট গ্রুপে ভাগ করে বিভিন্ন জায়গায় রাখা হয়েছে।

তিনি বলেন, "তাদের নিরাপত্তার স্বার্থেই আমি যে তথ্য পেয়েছি তা সবকিছু বলবো না। তবে তাদেরকে সীমান্ত পার করে চাদ বা ক্যামেরুনে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে মনে হয় না। আমি বিশ্বাস করি যে তারা নাইজেরিয়ার ভেতরেই আছে।"

বোকো হারাম এর আগে বলেছিল তারা ওই মেয়েদের বিক্রি করে দেবে। তবে এখন তারা বলছে বন্দী বোকো হারাম সদস্যদের ছেড়ে দেয়া হলেই তাদের মুক্তি দেয়া হবে।

ছবির কপিরাইট Casa Branca
Image caption ছাত্রীদের মুক্তির দাবি করছেন মার্কিন ফার্স্টলেডি মিশেল ওবামা

মাইদুগুরি শহরে অবস্থানরত বিবিসির সংবাদদাতা জন সিম্পসন বলছেন, বোকো হারাম নেতার কথায় মনে হয়, তারা এই মেয়েদের মুক্তি নিয়ে দরকষাকষি বা আলোচনা করতে ইচ্ছুক।

নাইজেরিয়া ইতিমধ্যে এই স্কুলছাত্রীদের খোঁজ পেতে ইসরাইলি সন্ত্রাস দমন কর্মকর্তাদেরও সাহায্য নিচ্ছে।

মার্কিন, ফরাসী এবং ব্রিটিশ বিশেষজ্ঞদের দলও ইতিমধ্যেই নাইজেরিয়া পৌঁছেছেন।

এই খবর নিয়ে আরো তথ্য