আত্মবিশ্বাসের তুঙ্গে ফ্রান্স-সুইটজারল্যান্ড

  • ২০ জুন ২০১৪
হন্ডুরাসের বিরুদ্ধে গোলের পর ফ্রান্সের ফরোয়ার্ড করিম বেনযেমা ছবির কপিরাইট AFP
Image caption হন্ডুরাসের বিরুদ্ধে গোলের পর ফ্রান্সের ফরোয়ার্ড করিম বেনযেমা

বৃহস্পতিবারের খেলাগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ সময় রাত ১০টায় শুরু হয়েছে ইতালি ও কোস্টারিকার খেলা। দ্বিতীয় খেলায় বাংলাদেশ সময় রাত ১টায় মুখোমুখি হবে ফ্রান্স ও সুইজারল্যান্ড। আর ভোর ৪টায় রয়েছে হন্ডুরাস ও একুয়েডরের মধ্যকার খেলা।

ফ্রান্স-সুইটজারল্যান্ড

ছবির কপিরাইট Epa
Image caption একুয়েডরের জালে বল দিয়েছে সুইটজারল্যান্ড

দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সালভাদরের অ্যারেনা ফন্তে নোভায় বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সময় রাত ১টায় মুখোমুখি হচ্ছে ফ্রান্স ও সুইটজারল্যান্ড। গ্রুপ পর্বে নিজেদের প্রথম ম্যাচে দুই দলই জয় পেয়েছিল। আর তাই দু'দলেরই আজ একই সমীকরণ। জয় পেলেই সরাসরি দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত। সুইটজারল্যান্ডের দলে উইংগার ভ্যালেনটিন স্টোকারের পরিবর্তে আ্যডমির মেহমেদি খেলতে পারেন। ফলে আক্রমণভাগে কি অপেক্ষা করছে তা নি:সন্দেহে দেখার ব্যাপার হবে। মধ্যমাঠের ফিলিপ সেন্ডেরস বলছেন দলের আত্মবিশ্বাস এখন তুঙ্গে।

তিনি বলছেন, ''এই গ্রপে আমরা যে অবস্থানে আছি তাতে করে বলা যায় দলের মধ্যে আত্মবিশ্বাস এখন বেশ ভালই রয়েছে। আজ সেটা প্রতিফলন দেখা যাবে।''

অন্যদিকে ফ্রান্স আশাবাদী যে মধ্যমাঠের খেলোয়ার ইওহান কাবায়ে ইনজুরি কাটিয়ে উঠে আজ মাঠে জাদু ছড়াতে পারবেন। নিজেদের প্রথম ম্যাচে বেনজেমার জোড়া গোলে ভর করে ফ্রান্স হন্ডুরাসকে ৩-০ গোলে হারায়।

আর এবারের বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম খেলায় একুয়েডরের সাথে ২-১ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে সুইসরা। এখন পর্যন্ত দুই দল সব ধরনের প্রতিযোগিতা মিলে মুখোমুখি হয়েছে ৩৬ বার। ফ্রান্স জয় পেয়েছে ১৫ বার, সুইজারল্যান্ড জয় পেয়েছে ১২ টি খেলায়। ড্র হয়েছে নয়টি ম্যাচ। ২০০৬ সালের গ্রুপ পর্যায়ে শেষবারের মতো মুখোমুখি হয় এই দুই দল এবং তাতে ফল ছিল গোল শূণ্য ড্র। তবে দুই দলের সর্বশেষ তিন সাক্ষাতে জিততে পারেনি কেউই। দুটি ম্যাচ গোলশূন্য ড্র হয়েছে, একটি ম্যাচের ফল ছিল ১-১।

হন্ডুরাস-একুয়েডর

ছবির কপিরাইট Getty
Image caption ফ্রান্স-হন্ডুরাস ম্যাচ

বাংলাদেশ সময় ভোর ৪টায় ক্যুরিচিবার আরিনা ডা বেইক্সাডায় মুখোমুখি হবে হন্ডুরাস ও ইকুয়েডর। এর আগে এবারের বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম খেলায় ফ্রান্সের কাছে ৩-০ গোলে হারে হন্ডুরাস। আর নিজেদের প্রথম খেলায় সুইজারল্যন্ডের কাছে ২-১ গোলে পরাজিত হয় ইকুয়েডর।

হন্ডুরাসে ক্যু'কে কেন্দ্র করে দু'দেশের মধ্যে তিক্ত সম্পর্ক চলছিল প্রায় পাঁচ বছর। তবে এর আগে ১৩ বার মুখোমুখি হয় দেশদুটি যার মধ্যে আট খেলাতেই ড্র হয়। বাকি খেলায় একুয়েডর জয় পায় তিন খেলায় আর বাকি দুই খেলায় জয় ঘরে নেয় হন্ডুরাস। সবশেষ ২০১৩ সালে নভেম্বরে খেলা হয়, তাতে ২-২ গোলে ড্র হয়।

এছাড়া হন্ডুরাস নিজেদের সবশেষ আটটি খেলার মাত্র একটিতে জয় পেয়েছে। বিগত সাত বিশ্বকাপে তিন খেলায় তারা ড্র করে আর চার খেলায় পরাজিত হয়।

হন্ডুরাসের মিডফিল্ডার উইলসন পালাচিওস ফ্রান্সের বিপক্ষে খেলায় লাল কার্ড পাওয়ায় হরগে ক্ল্যারস অথবা অস্কার বোনিয়েক গার্সিয়া থাকতে পারেন দলে। অন্যদিকে নিজেদের সবশেষ আট ম্যাচে ইকুয়েডরের একমাত্র জয় আসে মার্চে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে।